logo

মঙ্গলবার, ২২ মে ২০১৮ | ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫

header-ad

হাতে লিখে পরীক্ষায় নকল, বহিষ্কারে ভবন থেকে ছাত্রীর লাফ

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

এসএসসির বহুনির্বাচনী পরীক্ষা চলাকালে এক ছাত্রীকে নকল করার অভিযোগে বহিষ্কার করা হয়। বহিষ্কারের পরই তিনি কেন্দ্রের দ্বিতীয় তলা ভবন থেকে লাফিয়ে পড়েন। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনা ঘটে মঙ্গলবার সকালে সাভারের অধরচন্দ্র উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে। ওই ছাত্রীকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

কেন্দ্রসচিব এবং বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পিটার গোমেজ বলেন, আজ পদার্থবিদ্যা বিষয়ের বহুনির্বাচনী পরীক্ষা ছিল। পরীক্ষা চলাকালীন সাভারের একটি বালিকা বিদ্যালয়ের এক ছাত্রী আগে থেকে হাতের মধ্যে উত্তর লিখে আনে। হাতে লেখা উত্তর দেখে দেখে সে পরীক্ষা দিচ্ছিল।

তিনি বলেন, বিষয়টি দেখে ফেলেন কেন্দ্রের দেখভাল'র দায়িত্বে থাকা সাভার উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মেজবা উদ্দীন। তিনি ওই ছাত্রীর হাতে লিখে আনা উত্তরের সঙ্গে প্রশ্নপত্রের উত্তর মিলিয়ে দেখে বহিষ্কার করেন।

ওই ছাত্রী জানান, কুষ্টিয়ায় তার এক বন্ধুর কাছ থেকে ফেসবুকের মাধ্যমে উত্তরপত্র সংগ্রহ করেছেন। এ কথা বলে তিনি হঠাৎ করেই কেন্দ্রের দোতলা থেকে লাফিয়ে পড়েন।

পরে আহতাবস্থায় তাকে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান কেন্দ্রের দায়িত্বরত কর্মকর্তারা। এখানেই তিনি এখন চিকিৎসাধীন। তার কোমর ও বাঁ পায়ে আঘাত লেগেছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মেজবা উদ্দীন বলেন, আমি মেয়েটিকে নকল করতে দেখে অন্য শিক্ষকদের ডাকি। দেখা যায়, তার হাতে লেখা উত্তরপত্রের সঙ্গে পরীক্ষার প্রশ্নের উত্তরের হুবহু মিল রয়েছে। বিধি অনুযায়ী ওই ছাত্রীকে বহিষ্কার করা হয়।
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম