logo

শনিবার, ৩০ মে ২০২০ | ১৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭

header-ad

১২ নাম্বার ওয়ার্ডে লাটিমের পক্ষে গণজোয়ার

হাবিবুর রহমান বাবু | আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২০

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১২ নাম্বার ওয়ার্ডে ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে খোঁজ নিচ্ছেন লাটিম প্রতিক নিয়ে কাউন্সিলর প্রার্থী এলাকার প্রিয়মুখ মামুন রশিদ শুভ্র
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের সবগুলো ওয়ার্ডে এখন বইছে নির্বাচনের গরম হাওয়া। দুই সিটি কর্পোরেশনের মেয়ের প্রার্থীরাসহ সবগুলো ওয়ার্ডের কাউন্সিল প্রার্থীরা প্রতিদিন চালাচ্ছেন জোরালো প্রচারণা। ব্যানার, পোস্টারে ঢেকে গেছে পুরো ঢাকা সিটি।

এরইমধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১২ নাম্বার ওয়ার্ডে লাটিম প্রতিক নিয়ে কাউন্সিলর নির্বাচন করছেন এই এলাকার প্রিয়মুখ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মামুন রশিদ শুভ্র। একই সাথে তিনি সদ্যবিদায়ী ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামীলীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক।
মালিবাগ, শান্তিবাগ, গুলবাগ এলাকার এই ১২ নাম্বার ওয়ার্ডে বিভিন্ন দলের একাধিক প্রার্থী থাকলেও জনপ্রিয়তার দিক থেকে অনেক বেশি এগিয়ে আছেন শুভ্র । এলাকায় সব ধরনের সামাজিক কাজে অংশগ্রহণ ও সন্ত্রাসী-চাঁদাবাজি ও মাদকের ব্যাপারে আপোষহীন ভুমিকার কারণে আগে থেকেই শুভ্রর ব্যাপারে এলাকাবাসীর ইতিবাচক মনোভাব রয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ১৮ জানুয়ারি বিশাল নির্বাচনী শোডাউনের পর এলাকার দৃশ্যপট আরো পাল্টে গেছে। এলাকার ভোটারদের মুখে মুখে উচ্চারিত হচ্ছে শুভ্রর নাম। সব মিলিয়ে অন্যসব প্রার্থীকে পেছনে ফেলে এই ওয়ার্ডে লাটিমের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

মামুন রশীদ শুভ্র বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি। আমি সত্যকে সত্য এবং মিথ্যাকে মিথ্যা বলেই বিশ্বাস করি। আমার জনপ্রিয়তার ভয়ে এলাকায় মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে সদ্য বিদায়ী কাউন্সিলর। তবে আমার এলাকার ভোটাররা ভোট দেয়ার মাধ্যমে এই অপপ্রচারের জবাব দিবেন বলে আমি মনে করি। আমি নির্বাচিত হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত ডিজিটাল ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। ভোটারদের শুখে দুঃখে পাশে থাকার প্রতিজ্ঞা আমি করছি।

মালিবাগে এলাকাবাসীর সাথে প্রচারণায় মামুন রশিদ শুভ্র
ওছাড়াও দল-মত নির্বিশেষে উন্নয়নের স্বার্থে একসাথে কাজ করা হবে বলেও জানান তিনি। এলাকার অনুন্নত রাস্তাঘাট অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও অপরিচ্ছন্ন স্যুয়ারেজ লাইনের সমস্যা থেকে এলাকাবাসীকে মুক্তি দিয়ে এলাকার মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন এবং আধুনিকায়নের ঘোষণা দেন তিনি। বিশেষ করে ১২ নং ওয়ার্ডকে মাদকমুক্ত করার অঙ্গিকার করেন তিনি। নির্বাচনে বিজয়ের ব্যাপারে মহান আল্লাহ রব্বুল আলামীনের উপর তিনি শতভাগ আস্থাশীল।