logo

বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ | ৩১ শ্রাবণ, ১৪২৫

header-ad

পেছাল খালেদার আপিল

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের ষষ্ঠ দিনেও সার্টিফায়েড কপি পাননি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। ফলে পিছিয়ে গেছে তার আপিল আবেদন। খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বলেন, রায়ের কপি বুধবার পেলে পরদিন আপিল ফাইল করা হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে ওকালতনামা নিয়ে যান খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা।

পরে কারা ফটকে সানাউল্লাহ মিয়া বলেন, আজকে আমরা কয়েকটি ওকালতনামা জেল সুপারের মাধ্যমে ম্যাডামের কাছে দিয়ে এসেছি। তিনি দেখে-শুনে পরে সই করে দেবেন। দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদকের মামলাসহ অন্যান্য মামলায় ম্যাডাম জামিনে আছেন।

তিনি বলেন, বুধবার আমরা দুপুরের পর রায়ের কপি পাব। এটা ঢাকা বিশেষ জজ-৫ আমাদের সরবরাহ করবেন। আমাদের বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসায় আসতে হবে না। কাল যদি আমরা রায়ের কপি পাই, তাহলে পরদিন হয়তো আপিল ফাইল করতে পারব।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সোমবার কাস্টডি ওয়ারেন্ট ও প্রডাকশন ওয়ারেন্ট পাঠানো হয়েছে এবং শ্যোন অ্যারেস্ট বলে অনেকে নিউজ করেছেন। এর কোনোটাই আসেনি। বন্দি অবস্থায় একমাত্র কোর্ট ছাড়া অন্য কারো এটা দেয়ার ক্ষমতা নাই। এটা শুধু কোর্ট ইস্যু করবেন।

তিনি আরো জানান, আমাদের জানা মতে এবং কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে- এরকম কোনো কিছু আসেনি। যা এসেছে তা কোর্টে হাজিরার নির্দেশনা।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী জাকির হোসেন ভূইয়া ও সৈয়দ জয়নাল আবদিন মেজবা।

বৃহস্পতিবার পুরানো ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। এ ছাড়া মামলার অপর আসামি বিএনপি প্রধানের ছেলে তারেক রহমানসহ বাকি আসামিদের ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। তাদেরকে ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রায়ের পরপরই খালেদা জিয়াকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয়। 

ফেমাসনিউজ২৪/আরআর/আরইউ