logo

মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০ | ১১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭

header-ad

বইমেলায় আসছে ‘আমার নাম মুজিব ইরম আমি একটি কবিতা বলবো’

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ১৪ জানুয়ারি ২০১৮

অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০১৮ এখন দিন গণনায়। ফেব্রুয়ারির প্রথম দিন থেকেই শুরু হচ্ছে বাঙালির এ প্রাণের মেলা। মেলায় প্রকাশিত হচ্ছে নব্বই দশকের জনপ্রিয় কবি মুজিব ইরম-এর চৌদ্দতম কবিতার বই ‘আমার নাম মুজিব ইরম আমি একটি কবিতা বলবো’।

এটি মুজিবের ১৪তম বই। নতুন এই বই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বইমেলায় প্রকাশিত হচ্ছে আমার ‘১৪তম ১ম’ কবিতার বই। প্রতিবারের মতো যথারীতি ১৪তম বইকে ১ম বই বললাম এই কারণে, পাঠককে এবং নিজেকেও স্মরণ করিয়ে দিতে যে, আমি তো আসলে একটা বইই রচনা করতে চাই জীবনভর।

কবিতার বিষয়বস্তু সম্পর্কে তিনি বলেন, কবিতাগুলো নিয়ে শুধু এইটুকু বলতে পারি, এই কবিতাগুলো মনে হয় সর্বপাঠকের জন্য লিখতে চেয়েছি। লিখতে চেয়েছি ‘আউট বইয়ের কবিতা নয়’, ‘পাঠ্যবই’য়ের কবিতা। তথাকথিত ‘আধুনিক কবিতা’, ‘কঠিন কঠিন কবিতা’ লিখতে লিখতে আর পড়তে পড়তে বড় ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম। শব্দের কুস্তাকুস্তি আর ভালো লাগছিল না। তাই হয়তো পুরান কবিতাই লিখতে চেয়েছি। চেষ্টা করেছি কবিতা ও পদ্যের ভেদ রেখা তুলে দিতে।

বইটি প্রকাশ করেছে চৈতন্য প্রকাশনী। প্রচ্ছদ করেছেন সমর মজুমদার।

১৯৯৬ সালে ‘মুজিব ইরম ভনে শোনে কাব্যবান’ কাব্যগ্রন্থ দিয়ে সাহিত্য অঙ্গনে পদার্পন করেন গুণী এ কবি। তারপর একে একে লিখে যান, ‘ইরমকথা’, ‘ইরমকথার পরের কথা’, ‘ইতা আমি লিখে রাখি’ ও ‘উত্তরবিরহচরিত’সহ বেশ কিছু বই।

শুধু কবিতাতেই নয়, গল্প-উপন্যাসেও মুজিব ইরমের বিচরণ একইসঙ্গে দৃশ্যমান। ‘বারকি’, ‘মায়াপীর’, ‘বাগিচাবাজার’ নামে উপন্যাস যেমন তিনি লিখেছেন, তেমনই লিখেছেন ‘বাওফোটা’ নামের গল্পের বইও। রয়েছে ‘জয় বাংলা’ নামে মুক্তিযুদ্ধের উপন্যাস ও শিশুদের জন্য ‘এক যে ছিল শীত ও অন্যান্য গপ’।

সাহিত্যে অবদানের জন্য বাংলা একাডেমি তরুণ লেখক প্রকল্প পুরস্কার ১৯৯৬, সংহতি সাহিত্য পদক ২০০৯, কবি দিলওয়ার সাহিত্য পুরস্কার ২০১৪, ব্র্যাক ব্যাংক-সমকাল সাহিত্য পুরস্কার ২০১৪ এবং সিটি-আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার ২০১৬ সহ অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন এই কবি।

ফেমাসনিউজ২৪/আরএ/আরইউ