logo

সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৯ আশ্বিন, ১৪২৫

header-ad

এমএইচ মোবারক’র পাঁচটি কবিতা

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ১৪ এপ্রিল ২০১৮

পথের পাঠশালায়

দৃশ্যের উল্টো পাতায় যেতে ভয় হয়-
ক্রোধ থাকে ক্ষয় থাকে,
চোখের পাতায় পাতায়।
যেখানে জ্বলে উঠা বেমানান।
দৃষ্টিতে যুদ্ধের ইশারা,
আশ্চর্য এক উন্মাদনা,
তিরবিদ্ধ নগ্নমনে উদভ্রান্ত মানবসত্তা।
দূর নক্ষত্রের আলোতে
ভ্রূণ ছুঁয়ে দেখার পরেই-
ব্যস্ত শ্মশানঘাট।
অপেক্ষোরা পৌছে যাক পথের পাঠশালায়
হেটেছি বহু পথ অনেকটা অক্লান্ত,
শিখছি, শিখছি, তবু শিখছি বারবার।
একপথে নয়,নতুনের নেশায়,
কতো রাত হয়েছে গত।

 

তৃষ্ণা

কথা হয়েছে শরীরের সাথে শরীরের !
মেটেনি তবু সে দাবি,
বেড়েছে এক মরু তৃষ্ণা।

প্রতিবার ঠোঁটে ঠোঁট রেখে
চুমুকের পর চুমুক হয়েছে,
তবু পিপাশার গতী দুরন্ত।

ষ্পর্ষ বলছে আমার মেটেনি একটুও
আরও এক বুক ঘাম জমুক বুকের খাঁজে,
উর্বর করে দিতে চাই।

দাবি নিয়ে বলে উঠুক শেষ করে দিয়েছি!
এর পরক্ষনেই নামবো ভাবছি,
ফিরে আসর নতুন আহবানে।

 

বিমূর্ত অতীত

পৃষ্ঠা ভরা মুদ্রণ
প্রচ্ছদের রঙে-
আকাশ সীমায় দাগ পরেছে আজ।
অন্ধকারটা বেশ স্বাধীন
এরপরেও বেপরোয়া চারপাশ,
মূখ্য ভূমিকায় নেকড়ে-রাত্রি-নারী।
বিমূর্ত অতীত
একাকী সমুদ্রের জল,
গায়ে চিহ্নের দাগ।
জোছনা ধোওয়া রাত
বৃষ্টিভেজা দুপুরে এসে হার মেনেছে
একটু আড়ালে মুছে সব কোলাহল।

 

বসন্তের ডাক

এই বসন্তে পলাশ খোঁজে শিমলিকে,
খুজুক না। আমি খুঁজি কাকে?
পথে পথেই খুঁজে চলি
হাটতে হাটতে হয়তো পাবো তাকে
দুরন্ত রঙ গায়ে মেখে
বসে আছি তোমোর জন্য
বসন্ত আজ ডাকছে তোমায়,
আমার সুরে বলছি আমি, ফিরে এসো।

 

বিচ্ছিন্ন অন্ধকার

ভুলে গিয়ে বিচ্ছিন্ন অন্ধকার
পৃথিবী জেগে আছে পাশে,
আলোতে তুমি যে জন
তা হয়তো অন্ধকারেও।
ভাবছি আমি একটু হারাবো
যেখানে সহজেই খুঁজে পাবে,
মেঘের দেশে ছায়ার মতো
এবেলা হারিয়ে ও বেলা ফেরত।
দেহের খোলসেই আছি
পালাবার নেই পথ
যেন ঘুম ভাঙ্গলেই ঝড়ের পূর্বাভাস।

ফেমাসনিউজ২৪/আরইউ