logo

শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ | ৪ কার্তিক, ১৪২৫

header-ad

কবিগুরুর লেখা শেষ কবিতাটি কী জানেন?‌

শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক | আপডেট: ০৯ মে ২০১৮

দুই হাজারের বেশি গান। কবিতার সংখ্যা পাঁচ হাজারের বেশি। অসংখ্য কাব্যগ্রন্থ। এই বিপুল সাহিত্য সম্পদ, বিশ্বভারতী, জোড়াসাঁকোর ঝকঝকে ইতিহাস, বাংলা সাহিত্যের সখের ধন ছেড়ে ৭ আগস্ট, ১৯৪১ সালে প্রয়াত হন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। আজ তার জন্মদিন।

আজকের দিনে নতুন করে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জীবনের নানা অজানা অধ্যায় পড়ে নেয়ার সুযোগ। পড়ে নিন তার লেখা শেষ কবিতাটি।

তোমার সৃষ্টির পথ রেখেছ আকীর্ণ করি
বিচিত্র ছলনাজালে,
হে ছলনাময়ী।
মিথ্যা বিশ্বাসের ফাঁদ পেতেছ নিপুণ হাতে
সরল জীবনে।
এই প্রবঞ্চনা দিয়ে মহত্ত্বেরে করেছ চিহ্নিত;
তার তরে রাখ নি গোপন রাত্রি।
তোমার জ্যোতিষ্ক তা'রে
যে-পথ দেখায়
সে যে তার অন্তরের পথ,
সে যে চিরস্বচ্ছ,
সহজ বিশ্বাসে সে যে
করে তা'রে চিরসমুজ্জল।
বাহিরে কুটিল হোক অন্তরে সে ঋজু,
এই নিয়ে তাহার গৌরব।
লোকে তা'রে বলে বিড়ম্বিত।
সত্যেরে সে পায়
আপন আলোকে ধৌত অন্তরে অন্তরে।
কিছুতে পারে না তা'রে প্রবঞ্চিতে,
শেষ পুরস্কার নিয়ে যায় সে যে
আপন ভান্ডারে।
অনায়াসে যে পেরেছে ছলনা সহিতে
সে পায় তোমার হাতে
শান্তির অক্ষয় অধিকার।‌‌‌
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম