logo

মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮ | ১ কার্তিক, ১৪২৫

header-ad

সোহেলী চৌধুরী লিন্ডার গুচ্ছ কবিতা

| আপডেট: ২২ মে ২০১৮

তোমাকে

 

তোমাকে আমি দেখেছি

মৌচাকের ঐ মৌ বনে

তোমাকে আমি দেখেছি

রমনার ঐ বটমূলে।

উদাস মনে রচনা করছো কিছু

তোমাকে আমি দেখেছি

নিউ মার্কেটের ঐ গলির ভেতর দিয়ে

এলো মেলো চুলে,

হেটে চলছ তুমি।

তোমাকে আমি দেখেছি

মিড মাইডের ঐ চাইনিজে।

ঝংকার উঠিয়েছ?

সামনে দু’দণ্ড চাপে।

তোমাকে আমি দেখেছি

ইডেন কলেজের পাশ দিয়ে;

ঘন কালো কেশ ছড়িয়ে দিয়ে

হেঁটে হেঁটে যেতে।

তুমি কে? যাকে আমি খুজছি!

এই মন দিয়ে—

তুমি কি সেই?

 

শুধু তোমার জন্যে

 

তোমাকে বড্ড ভালবাসতে

ইচ্ছে করে

জানি না তুমি কি ভাবে নেবে

শুধু তোমার কথা শুনার জন্যেই

ছুটে আসি—

শত ব্যস্ততার মধ্যে, তোমাকে পাবো বলে

সব কিছু ফেলে

অলস দুপুর, ঝলমলে বিকেল রাতের জ্যোছনাও

অপেক্ষায় থাকে, শুধু তোমার জন্য।

জানি তোমাতে আমাতে রয়েছে দু’টি সুউচ্চ দেয়াল

তবুও তোমাকে পেতে ইচ্ছে করে।

জানি, তোমার যোগ্যতা সুউচ্চে আমি নেই।

তবুও মানে না মন

তোমার জন্যই অপেক্ষার প্রহর গুণে।

জানি, তুমি তোমার

সুউচ্চ প্রাচীর ভাঙতে পারবে না,

কারণ তুমি আসতে পারবে না

খোলা আকাশের নিচে,

দু’টি হাত ধরে চলার ছন্দে।

তার পরেও কোনো সর্বনাশের আশায়

তোমার পথ চাওয়া?

তোমারই জন্যে।

হয়তবা জীবনের শেষদিনও কাটাতে হবে

তোমাকে ছাড়া, তোমারই পথ চেয়ে

প্রহরের পর প্রহর

যখন তুমি থাকবে অন্য কোনোখানে।

তুমি হয়তো বুঝতেই পারছো না

আমার ভালোবাসা

আফসোস যদি পারতাম 

বুক চিরে দেখাতাম

শুধু তোমারই নাম।

আর এখন শুধুই সম্বল

একবুক ব্যর্থতার ঢেউ,

শুষ্ক মরুভূমি হৃদয়ে

তবুও মাঝে মাঝে শান্তি ছড়ায়

তোমার পথ চেয়ে থাকা।

পাবো না জেনেও হাল ছাড়ব না,

মানবোনা কোনো পরাজয়

পরপারে হলেও বসে থাকব

শুধু তোমারই জন্যে।

 

বিদ্রোহ আমার

 

আমার আজীবন লালিত বিদ্রোহ

কখনো প্রকাশ হয়—

প্রখর রৌদ্রের—

আমার কলমের নীল আঁচড়ে আঁচড়ে।।

সাদা কাগজের বুকে।

কখনো বা সহজ সরল চাহনি—

কখনো বাতাস হয়ে বয়—

কখনো রৌদ্রে মেলানো কাপড়টি—

হয়ে উড়ে পত পত।

কখনো মায়ের চোখের অশ্রু হয়ে ঝরে—

কখনো বসন্তের ঝরাপাতা—

হয়ে-বাজে মরমর—

কখনো তৃষ্ণার্ত পথিকের,

নির্বাসিত পানীয়—।

কখনো ক্লান্ত, পরিশ্রান্ত

হয়ে দেয় ঘুম।

কিন্তু তুমি—

স্থবির, বিবশ, অবশ-বন্ধু,

তুমি আছ চেয়ে—

আমার দিকে তাকিয়ে।

বিমুগ্ধ নয়নে—

গর্বিত বক্ষে—

তৃপ্ত তুমি—

আছো তাকিয়ে।

আমার সুন্দর অবয়বের

দিকে তোমার সুতীক্ষ্ম দৃষ্টি—

আমার রক্তলাল ঠোঁটের

রক্তলাল লিপস্টিক—

রক্ত বিদ্রোহ হয়ে ঝরছে—

ঝরছে, ঝরছে, ঝরছে—

ততক্ষণে বন্ধু দারুণ পরিতৃপ্তি

নিয়ে আছো তুমি আমার জড়িয়ে।।

লেখক : কবি, সংগঠক ও সাংবাদিক।

ফেমাসনিউজ২৪/আরইউ