logo

শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

বিশ্বব্যাংকে সময় দিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ১১ এপ্রিল ২০১৮

চলতি অর্থবছরের জিডিপির প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন নিয়ে বিশ্বব্যাংক প্রশ্ন তোলায় তা পুনরায় রিভিউ করার জন্য আগামী মে পর্যন্ত সময় দিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুম্তফা কামাল।

বুধবার শেরে-ই-বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে ‘মিট দ্যা প্রেস’ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ সময় দেন।

গত সোমবার এক প্রতিবেদনে বছর শেষে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬.৬৫ হবে বলে জানিয়েছে বিশ্বব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ জাহিদ হোসাইন। একইসঙ্গে সরকারের ঘোষিত প্রবৃদ্ধি ৭.৬৫ কীভাবে হয় তা নিয়েও প্রশ্ন তুলে বিশ্ব ব্যাংকের প্রতিনিধিরা। সরকারের এ তথ্যের অনেক কিছুই আবারও বিশ্লেষণের প্রয়োজন আছে বলে মনে করে বিশ্বব্যাংক।

দেশের জিডিপি নিয়ে এমন প্রশ্ন তোলায় আ হ ম মুম্তফা কামাল বলেন, বিশ্বব্যাংকে মে পর্যন্ত সময় দিচ্ছি। তারা এ সময়ের মধ্যে যেসব বিষয় নিয়ে প্রশ্ন ও সংশয় প্রকাশ করেছে তা নিয়ে আলোচনা করবে। এরপর নিজেদের রিপোর্ট আবার রিভিউ করবে।

বিশ্বব্যাংকের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, জিডিপি নিয়ে আমরা যে ফিগার দিয়েছি (৭.৬৭) এটাই সঠিক।

তিনি বলেন, অর্থবছর শেষে (২০১৭-১৮) প্রবৃদ্ধি এর চেয়েও বেশি হবে। আমরা বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সহায়তায় এই ফিগার দিয়েছি। আমাদের ফিগারে নয় মাসের তথ্য রয়েছে কিন্তু বিশ্বব্যাংক দিয়েছে ৫ মাসের।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাংক ছাড়া আর কেউ আমাদের তথ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেনি। বিশ্বব্যাংক সব সময় এ কাজটি করে। বছরের প্রথমদিকে প্রবৃদ্ধি নিয়ে তারা দ্বিমত পোষণ করে, বছর শেষে আবার সেটা মেনে নেয়। এসময় বিশ্বব্যাংকের প্রতি প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন, এটা কেন?

মন্ত্রী বলেন, বিবিএস হচ্ছে ফাইনাল অথরিটি। এটা বিশ্ব ব্যাংকে মানতে হবে। কারও কোনো বিষয়ে সংসয় থাকলে বিবিএসে যান, আলোচনা করেন।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাংককে বলবো আপনারা বিবিএসের কাছে বসুন, তারপর তথ্য দিন। আমি বিশ্বাস করি- আমাদের তথ্যের ফিগার সঠিক। তাদেরও উচিত এগুলো বিশ্বাস করা।

মন্ত্রী বলেন, আমরা যে ঘোষণা দিয়েছি ৭ দশমিক ৬৫ প্রবৃদ্ধি হবে, এ নিয়ে বিশ্বব্যাংক ও এডিবি কথা বলেছে। এ নিয়ে আরও অনেকে বলছেন, বলবেন। যেখানে সরকারের ব্যত্যয় থাকে, সেই বিষয়ে বিভিন্ন দাতাগোষ্ঠি ও অর্থনীতিবিদের যে প্রস্তাব দেয় সরকার তা গ্রহণ করে।

আজ বুধবার চলতি অর্থবছর শেষে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি সাত শতাংশ হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে এশিয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)।

মিট দ্যা প্রেসে আরও উপস্থিত ছিলেন- বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের (আইএমইডি) সচিব মফিজুল ইসলাম, পরিকল্পনা বিভাগের সচিব জিয়াউল ইসলাম, বিবিএস সচিব সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্তী, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য(সচিব) জুয়েনা আজিজ প্রমুখ।

ফেমাসনিউজ২৪/এমআরইউ/এফএম/এমএম