logo

মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮ | ৫ আষাঢ়, ১৪২৫

header-ad

ধনীকে ধনী করার বাজেট : বিএনপি

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ০৭ জুন ২০১৮

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, নির্বাচনী বছরে ভোট আকর্ষণে প্রতারণার বাজেট দেয়া হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর পুরানা পল্টনে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির ইফতার মাহফিলে অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, এ বাজেট ধনীকে ধনী করার বাজেট। এ বাজেট দরিদ্র আরো দরিদ্র হবে। এ বাজেট জনগণের স্বার্থে নয়, নির্বাচনী বছরে ভোটের আকর্ষণের জন্য এত ঘাটতির একটি বিশাল বাজেট দেয়া হয়েছে। শুধু জনগণের থেকে প্রতারণা করে ভোট আকর্ষণ করার জন্য। তাই এটা নির্বাচনী বাজেট। আমরা এ বাজেট প্রত্যাখ্যান করছি। এ বাজেট জনগণের কোনো উপকারে আসবে না। আমরা তার প্রতিবাদ করছি।

তিনি বলেন, ঋণের বোঝা বাড়িয়ে ঋণনির্ভর বাজেটের মাধ্যমে রাজস্ব আদায়ের টার্গেট সম্ভব হবে না। কারণ ঘোষিত বাজেটে ধনী আরো ধনী এবং গরিব আরো গরিব হবে।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবি আদায়ে ২০ দলীয় জোটকে প্রস্তুতি নিতে হবে। খালেদা জিয়াকে নির্বাচনের বাইরে রাখার ষড়যন্ত্র করছে সরকার, যা কখনও সফল হবে না।

বিএনপি স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে বলেন, নির্বাচন সামনে রেখে লোক দেখানো বড় আকারের বাজেট দেয়া হয়েছে। বিগ বিউটিফুল ব্লু বেলুন। কিন্তু ভেতরে কিছু নেই। বিশাল বাজেট হলেই বিশাল উন্নয়ন হয় না। এর মধ্যে দুর্নীতি এবং এর অর্থের একটা বিরাট অংশ দুর্নীতির মধ্য দিয়ে চলে যাবে।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে দুপুর ১২টা ৫৩ মিনিটে বাজেট উপস্থাপন শুরু করেন অর্থমন্ত্রী। তার বাজেট বক্তৃতার শিরোনাম হচ্ছে ‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ।’

প্রস্তাবিত বাজেটে ঘাটতি আছে ১ লাখ ২৫ হাজার ২৯৩ কোটি টাকা। অর্থমন্ত্রী জানান, বাজেট ঘাটতি জিডিপির ৪ দশমিক ৯ শতাংশ। ঘাটতি অর্থায়নে বৈদিশিক সূত্র থেকে ৫৪ হাজার ৬৭ কোটি টাকা এবং অভ্যন্তরীণ সূত্র থেকে ৭১ হাজার ২২ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হবে।

প্রস্তাবিত বাজেটে বলা হয়েছে, মোট রাজস্ব আয় তিন লাখ ৩৯ হাজার ২৮০ কোটি টাকা।

এদিকে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বৃহস্পতিবার বিকেলে সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে দুস্থ মানুষের মাঝে ঈদবস্ত্র বিতরণকালে বলেন, এবারের বিলাসবহুল বাজেটের অর্থ পুরোটাই লুটপাট হবে এবং নির্বাচনের কাজে ব্যয় করবে সরকার।
ফেমাসনিউজ২৪/প্রতিনিধি/এফএম/এমএম