logo

বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ৫০ পয়সা

অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক | আপডেট: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮

দাম শুনে চোখে জল আসারই অবস্থা। ৫০ টাকা নয়, ৫০ পয়সা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। দাম শুনে চমকে যাওয়ার মতই অবস্থা। মনে করতেই পারেন, আমরা তাহলে ২৫ থেকে ৩০ টাকা কেজি দরে কেন কিনছি পেঁয়াজ?

জানিয়ে রাখা জরুরি, পেঁয়াজের এ দর আমাদের রাজ্যে নয় বিজেপি শাসিত ভারতের মধ্যপ্রদেশের ভূপালে। সেখানকার নিমুচ সবজি বাজারে ৫০ পয়সা কেজি দরেই বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। প্রজাতির রকম ফেরে সেই দাম ওঠানামা করছে চার থেকে সাত টাকার মধ্যে। এ দামের পতনে চোখে জল এখন মধ্যপ্রদেশের পেঁয়াজ চাষিদের।

এ রাজ্যেই দেশের সবথেকে বেশি পেঁয়াজ উৎপাদন হয়ে থাকে। প্রায় ৩০ লাখ মেট্রিক টন পেঁয়াজ উৎপাদন হয়েছে এবার। গত পাঁচ বছর ধরে নাকি পেঁয়াজের আমদানি বিপুল পরিমাণে হচ্ছে রাজস্থান–মধ্যপ্রদেশের সীমানা শহর নিমুচে।

সোমবার হঠাৎ করে ১০,০০০ বস্তা পেঁয়াজ এসে হাজির হয় নিমুচের সবজি বাজারে। তার জেরেই এক ধাক্কায় টাকা থেকে পয়সায় নেমে আসে পেঁয়াজের দাম।

এ অবস্থায় চরম দুর্দশায় কৃষিজীবীরা। মধ্যপ্রদেশে প্রায় দুই লাখ হেক্টর জমিতে রবিশস্য হিসেবে চাষ হয় পেঁয়াজের। বছরে ফসলের পরিমাণ ৩০ লাখ মেট্রিক টনের কাছাকাছি। গত পাঁচদিন যাবৎ রাজস্থান সীমান্ত সংলগ্ন নিমচ সবজি বাজারে পেঁয়াজের ঢল নামায় প্রজাতি বিশেষে ৪-৭ টাকা কেজি দরে তা বিক্রি হচ্ছে।

নিমচের এক কৃষিজীবী মেওয়ালাল পটিদার খেদোক্তি করেছেন, নামমাত্র দামে বিক্রির করার চেয়ে রাস্তায় ফেলে দেব ফসল। গ্রামে ফেরত নিয়ে যাওয়ার যে খরচ পড়ে, তা অন্তত গুণতে হবে না।

চলতি রবি মৌসুমে নিমচের প্রায় ৩৫০০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের চাষ করা হয়েছে। পাইকারি পেঁয়াজ বিক্রেতা সংগঠনের সভাপতি আবদুল রকিব জানিয়েছেন, আশপাশের গ্রামীণ এলাকা থেকে প্রতিদিন বিপুল পরিমাণে পেঁয়াজ এসে পৌঁছচ্ছে ভোপালের বাজারে। ফলে কুইন্টাল প্রতি দাম উঠছে মাত্র চারশ' থেকে সাতশ' টাকা।

২০১৭ সালের জুলাই মাসে খরিফ শস্যের অতিরিক্ত ফলনের জেরে লোকসান রুখতে ৮ লাখ মেট্রিক টন কেজিপ্রতি ৮ টাকা দরে কিনে নেয় সরকার। কিন্তু তার পরে জমে যাওয়া ফসল পচতে শুরু করলে তা মাটিতে পুঁতে ফেলতে বাধ্য হয় প্রশাসন।

এরপর কৃষকরা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করলে চলতি বছরে ভাবান্তর ভুগতান যোজনা প্রকল্পের আওতায় খেত থেকে ফসল সংগ্রহে উদ্যোগী হয় সরকার।

সাম্প্রতিক সমস্যার সমাধান পেতে এবারও কি সেই পথে হাঁটতে চলেছে মধ্যপ্রদেশ সরকার? বিষয়টি অনেকটাই নির্ভর করছে বিধানসভা নির্বাচনে জিতে ক্ষমতায় কে আসে তার উপর। তবে এ হারে দাম কমতে থাকলে বিনামূল্যেই পাওয়া যাবে পেঁয়াজ। ‌‌
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম