logo

সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮ | ৭ কার্তিক, ১৪২৫

header-ad
১০৬ শিক্ষক অসুস্থ

‘জাতীয়করণ করতে হবে, না হয় মেরে ফেলতে হবে’

বিশেষ প্রতিবেদক | আপডেট: ১২ জানুয়ারি ২০১৮

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আমরণ অনশনের চতুর্থ দিন শুক্রবার ১০৬ শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তারা এমপিওভুক্তির দাবিতে প্রায় দুই সপ্তাহ অবস্থান কর্মসূচির পর আমরণ অনশনের ঘোষণা দেন গত মঙ্গলবার। স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

শুক্রবার সংগঠনটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ৭ জন শিক্ষক চিকিৎসাধীন আছেন। অনশনস্থলে অসুস্থ হয়ে পড়ায় স্যালাইন দেওয়া আছে ১৮ জনকে। এর বাইরে সুস্থ হওয়ায় ঢামেক থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে তিনজনকে। বাকিরা অসুস্থতার কারণে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

গত ৯ জানুয়ারি দুপুর ১২টা থেকে চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে অনশন শুরু করেন ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষকরা। এখন পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে কোনো আশ্বাস পাননি তারা।

স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির সভাপতি কাজী রুহুল আমিন সাংবাদিকদের জানান, চাকরি জাতীয়করণের ঘোষণা না আসা পর্যন্ত তারা অনশন চালিয়ে যাবেন।

তিনি বলেন, ‘৩৪ বছর বিনা বেতনে চাকরি করে যাচ্ছি। আমাদেরও পরিবার আছে। এখন আর পারছি না। আমরা যে মানবেতর জীবনযাপন করছি, সরকার সে খোঁজ নেয়নি কখনো। এখন হয় আমাদের চাকরি জাতীয়করণ করতে হবে, না হয় মেরে ফেলতে হবে।’

অনশনরত শিক্ষকরা বলছেন, ‘ইবতেদায়ি মাদ্রাসার সব কার্যক্রম প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মতো হলেও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বেতন-ভাতা পান। কিন্তু ইবতেদায়ি মাদ্রাসার শিক্ষকরা তেমন কিছুই পান না। দিন দিন সব খরচ দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। এভাবে চলা সম্ভব হচ্ছে না।

ফেমাসনিউজ২৪/আরআই/আরবি