logo

শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১ | ৯ মাঘ, ১৪২৭

header-ad

পার্বতী হবেন কারিনা!

ফেমাস নিউজ ডেস্ক | আপডেট: ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৪

বাঙালি কথাসাহিত্যিক শরত্চন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের অমর সৃষ্টি দেবদাস উপন্যাস অবলম্বনে বাংলা, হিন্দি, উর্দু, তামিলসহ বিভিন্ন ভাষায় চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে। এবার দেবদাস উপন্যাস অবলম্বনে হার খোয়াইশ পে দম নিকলে ছবি তৈরির কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন বলিউডের প্রখ্যাত নির্মাতা সুধীর মিশরা। ছবিটিতে পার্বতী চরিত্রে কারিনা কাপুর খানকে পেতে চাইছেন তিনি।

১৯৩৫ সালে হিন্দি ভাষায় দেবদাস ছবি নির্মাণ করেছিলেন পি সি বড়ুয়া। ছবিটিতে দেবদাস ও পার্বতী চরিত্রে ছিলেন কে এস সায়গল ও যমুনা। এরপর ১৯৫৫ সালে দেবদাস ছবি তৈরি করেন ভারতের প্রখ্যাত চলচ্চিত্রনির্মাতা বিমল রায়। ছবিটিতে দেবদাস চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন ‘ট্র্যাজেডি কিং’খ্যাত বলিউডের অভিনেতা দিলীপ কুমার। আর দেবদাসের শৈশবের প্রেমিকা পার্বতী চরিত্রে ছিলেন বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেত্রী সুচিত্রা সেন।
পরবর্তী সময়ে ২০০২ সালে সঞ্জয় লীলা বানশালী পরিচালিত দেবদাস ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন ‘বলিউড বাদশাহ’ শাহরুখ খান। আর পার্বতী চরিত্রে দেখা যায় সাবেক বিশ্বসুন্দরী ও বলিউডের অভিনেত্রী ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনকে। এ ছাড়া ২০০৯ সালে একটু ভিন্ন আঙ্গিকে বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটেদেব ডি ছবি নির্মাণ করেন অনুরাগ কশ্যপ। ছবিটিতে দেবদাস ও পার্বতী চরিত্রে অভিনয় করেন অভয় দেওল ও মাহি গিল।
বহুদিন ধরেদেবদাস উপন্যাস অবলম্বনে ছবি তৈরির স্বপ্ন দেখছেন সুধীর মিশরা। আট বছর ধরে ছবিটি তৈরির প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি। কয়েক বছর আগে ধ্রুব শিরোনামে ছবি তৈরির পরিকল্পনাও করেছিলেন সুধীর মিশরা। ছবিটিতে দেবদাস ও পার্বতী চরিত্রে তিনি চেয়েছিলেন ফারহান আখতার ও কারিনা কাপুরকে। টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক খবরে বলা হয়েছিল, কারিনাকে ছাড়া ধ্রুব ছবিটি তৈরি করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন সুধীর। পরে অবশ্য ছবিটির কাজ স্থগিত হয়ে যায়।

এবার নতুন করে ধ্রুব ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন সুধীর মিশরা। ছবির শিরোনামেও পরিবর্তন আনা হয়েছে। ছবির নাম রাখা হয়েছে হার খোয়াইশ পে দম নিকলে। ২০০৩ সালে সুধীর মিশরার চামেলি ছবিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন কারিনা। এবার হার খোয়াইশ পে দম নিকলে ছবিতে পার্বতী চরিত্রে কারিনাকে পেতে চাইছেন সুধীর।

এ প্রসঙ্গে সুধীরের ভাষ্য, ‘দেবদাস উপন্যাস থেকে ছবি তৈরির জন্য বহুদিন ধরে অবচেতন মনে ডুবসাঁতার কাটছি আমি। বছরের পর বছর সময় ব্যয় করে ছবিটির চিত্রনাট্য দাঁড় করিয়েছি। অবশেষে আমার বহুদিনের স্বপ্ন পূরণের পথে হাঁটতে যাচ্ছি। আমার দেবদাস এবার আলোর মুখ দেখবে। মাঝে আরেকটি ছবির কাজ শুরু করেছিলাম। কিন্তু মাঝপথে তা আটকে গেছে। এজন্য এখন আমি হার খোয়াইশ পে দম নিকলে ছবিটি তৈরির চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। শিগগির এর শুটিং শুরু করব আমি।’