logo

বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ | ৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

'গান গাওয়ার পরই অনু বললেন, কিস কর'

বিনোদন ডেস্ক | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০১৮

বলিউডের মিটু তালিকা প্রতিদিন বেড়েই চলেছে। আবারও কাঠগড়ায় বলিউডের সঙ্গীত পরিচালক অনু মালিক। এবার তার বিরুদ্ধে যৌনহেনস্থার অভিযোগ করলেন সঙ্গীতশিল্পী শ্বেতা পণ্ডিত। অনু মালিককে পেডোফেলিক বলে আক্রমণ করেছেন শ্বেতা।

তার যখন ১৫ বছর বয়স, তখন মুম্বাইয়ের একটি স্টুডিওতে অনু মালিক তাকে যৌনহেনস্থা করেছিলেন। অনু শিশুদের উপর যৌন অত্যাচারে আসক্ত বলেও টুইটারে নিজের #মিটু শেয়ার করেছেন সঙ্গীত শিল্পী শ্বেতা। সাবধান করেছেন তরুণ গায়িকাদের।

ঘটনা প্রায় ১৭ বছর আগের। শ্বেতা লিখেছেন, মুম্বাইয়ের এম্প্যায়ার স্টুডিওতে তাকে ডেকে পাঠান অনু মালিকের ম্যানেজার। অনু তখন সুনিধি চৌহান ও শানের সঙ্গে ‘আওয়ারা পাগল দিওয়ানা’ সিনেমার একটি গ্রুপ সং রেকর্ড করছিলেন। গায়ক-গায়িকাদের গান করার একটি ছোট্ট কেবিনে আমাকে বসতে বলেন। সেখানে শ্বেতা এবং অনু মালিক ছাড়া আর কেউ ছিলেন না। সেখানেই কয়েক লাইন গাইতে বলেন।

শ্বেতার অভিযোগ, আমি ভালোই গান করলাম। তার পরেই উনি বললেন, এ গানটা আমি শানের সঙ্গে তোমাকে দিয়ে করাব। কিন্তু তার আগে আমাকে চুমু দাও। তারপর তিনি হাসলেন। এখনও মনে করতে পারি, আমি ও রকম খারাপ দেঁতো হাসি প্রথম দেখলাম। আমার বয়স তখন মাত্র ১৫, স্কুলে পড়ি। ২০০১ সাল।

শ্বেতার অভিযোগ, আমাকে জোর করে কয়েকবার চুমু খেতে গিয়েছিলেন। গায়ে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানিরও চেষ্টা করেছিলেন। বাধা দেয়ায় ওর বিরাগভাজন হই আমি। মহিলা সঙ্গীতশিল্পীদের প্রতি যৌনইঙ্গিতপূর্ণ ব্যবহারে অভ্যস্ত অনু মালিক।

শ্বেতার বক্তব্য, যে কেউ সেই মুহূর্তে আমার অনুভূতি আন্দাজ করতে পারেন। আমার মনে হচ্ছিল, কেউ যেন আমার পেটে ছুরি মেরেছে। আমি ওকে অনু আঙ্কেল বলে ডাকতাম। আমার পরিবার এবং সঙ্গীত ঘরানা সম্পর্কেও জানতেন উনি।সে অভিজ্ঞতা জীবনে ভুলতে পারিনি।
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম