logo

বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

শেষরক্ষা হলো না হিরো আলমের

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আপিলেও মনোনয়ন ফিরে পাননি ‘হিরো আলম’ খ্যাত বগুড়া-৪ আসনের আশরাফুল হোসেন আলম। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনে আপিল-নিষ্পত্তির শুনানিতেও তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

স্বতন্ত্র হিসেবে কেউ প্রার্থী হতে চাইলে বা নির্বাচন করতে চাইলে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে ১ শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষর দাখিল করতে হয়। কিন্তু হিরো আলমের মনোনয়নপত্রে নির্ধারিত ভোটারের স্বাক্ষর ছিল না। এ কারণে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেছিলেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসার।

এর আগে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পটুয়াখালী-৩ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম মাওলা রনিসহ বিএনপিদলীয় ৫ জন প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে নির্বাচন কমিশন এ সিদ্ধান্ত দেয়।

মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর না থাকায় তা জমা দেয়ার পর বাতিল হয় গোলাম মাওলা রনির।

অন্যরা হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শামসুল হুদার আবেদনের শুনানির মাধ্যমে কমিশন এ কার্যক্রম শুরু করে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও অন্য নির্বাচন কমিশনাররা শুনানি করছেন।

বগুড়া-৭ আসনে বিএনপির প্রার্থী মিল্টন মোর্শেদের আপিল শুনানি শেষে তাকে প্রার্থিতা ফিরিয়ে দেয়া হয়। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ না করার কারণ দেখিয়ে তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছিল।

প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন ঢাকা-১ আসনের বিএনপির আরেক প্রার্থী খন্দকার আবু আশফাক। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ না করার কারণ দেখিয়ে তারও মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছিল।

মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষিত হয়েছে জামালপুর-৪ আসনের বিএনপিপ্রার্থী ফরিদুল কবীর তালুকদার শামীম এবং ঢাকা-২০ আসনের প্রার্থী তমিজ উদ্দিনেরও। দুজনের মনোনয়নপত্রও বাতিল হয়েছিল পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে সরে না দাঁড়ানোর কারণে।

ফেমাসনিউজ২৪.কম/আরআই/আরবি