logo

শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১ | ৯ মাঘ, ১৪২৭

header-ad

কিশোরীকে আটকে দেহ ব্যবসা, অভিনেত্রীর বাড়িতে অভিযান

বিনোদন ডেস্ক | আপডেট: ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

নাবালিকাদের আটকে রাখা এবং মারধরের অভিযোগ উঠেছে তেলুগু-তামিল অভিনেত্রী ভানুপ্রিয়ার বিরুদ্ধে। নাবালিকা মেয়েকে চেন্নাইয়ের টিনগরে নিজের বাড়িতে আটকে রেখেছেন ভানুপ্রিয়া।

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের সামালকোর্টে এ মর্মে অভিনেত্রীর নামে একটি অভিযোগ দায়ের করেন মেয়েটির মা। শুধু তাই নয়, মেয়ের সঙ্গে তাকে দেখা করতে দেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন ওই মহিলা।

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই শিশু অধিকার নিয়ে কাজ করা সমাজকর্মী অচ্যুত রাও জাতীয় শিশু অধিকার ও সুরক্ষা কমিশনের কাছে ঘটনাটি জানিয়ে একটি চিঠি লেখেন। পাশাপাশি অভিনেত্রীকে গ্রেফতারের দাবিও তোলেন তিনি।

সূত্রের খবর, কমিশনের কর্মকর্তারা অভিযোগ পাওয়ার পরই ভানুপ্রিয়ার চেন্নাইয়ের বাড়িতে হানা দেন। অভিযান চালানোর সময় অভিনেত্রীর বাড়ি থেকে তিন নাবালিকাকে উদ্ধার করা হয়।

সমাজকর্মী অচ্যুত রাওয়ের দাবি, ভানুপ্রিয়ার বাড়ি থেকে চার নাবালিকাকে উদ্ধার করা হয়েছে। পাচারের উদ্দেশ্যে ওই মেয়েগুলোকে রাখা হয়েছিল কিনা বা তাদের যৌন নির্যাতন চালানো হয়েছে কিনা তা তদন্ত করার দাবিও জানান রাও।

এনডিটিভিকে তিনি বলেন, শিশু অধিকার আইন লঙ্ঘন করেছেন ভানুপ্রিয়া ও তার মা। এতগুলো মেয়েকে যদি অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে চেন্নাই আনা হয় তাহলে পাচারের জোরালো সন্দেহ ওঠে বইকি।

পুলিশ জানিয়েছে, যে মহিলা অভিযোগ করেছিলেন তার মেয়ের বয়স ১৫ বছরের বেশি নয়। মহিলা পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন, পরিচারিকার কাজের জন্যই তার মেয়েকে অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে অভিনেত্রীর চেন্নাইয়ের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

তাকে মাসিক ১০ হাজার টাকা দেয়ারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন অভিনেত্রী। কিন্তু গত ১৮ মাস ধরে একটা টাকাও তাকে দেননি ভানুপ্রিয়া।

মহিলার দাবি, কিছুদিন আগেই অন্য একজনের মোবাইল থেকে ফোন করেছিল তার মেয়ে। সে তখন জানায়, শারীরিক ও যৌন নির্যাতন চালানো হচ্ছে তার উপর। খবর পেয়ে গত ১৮ জানুয়ারি অভিনেত্রীর চেন্নাইয়ের বাড়িতে যান। কিন্তু তাকে ঢুকতে দেয়া হয়নি বলে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন মহিলা।

যদিও নবালিকাদের আটকে রেখে নির্যাতন চালানো এবং পাচারের সব অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন ভানুপ্রিয়া। পাল্টা ওই মহিলার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন তিনি।

তার অভিযোগ, মহিলা তার কাছে মেয়ের বয়স ১৮ বলেছিলেন। শুধু তাই নয়, বাড়ি থেকে গয়না, টাকা এমনকি বেশকিছু ইলেকট্রনিক গ্যাজেটও চুরি করে মেয়েটি। সেগুলো সে তার মাকে দিয়ে দেয়। তার পরই ভানুপ্রিয়া ওই মহিলার বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ দায়ের করেন পুলিশের কাছে।

ভানুপ্রিয়া বলেন, চুরি করা জিনিসগুলো ফেরত দেয়ার জন্য মহিলাকে বলেছিলেন তিনি। শুধু আই প্যাড ফেরত দিয়েছেন। ঘড়ি, ক্যামেরা এবং বাকি মূল্যবান জিনিসপত্র ফেরত দেয়ারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু দেননি। তাই এখন অন্ধ্রপ্রদেশে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনছেন মহিলা।

পুলিশ এরই মধ্যে গোটা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। ভানুপ্রিয়ার ভাইয়ের বিরুদ্ধেও একটি মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করা হয়েছে বলে অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশ সূত্রে খবর।

অন্ধ্রপ্রদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ভানুপ্রিয়া। অভিনয় করেছেন বহু তেলুগু ও তামিল ছবিতে।
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম