logo

মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮ | ১০ মাঘ, ১৪২৪

header-ad

ফেমাসনিউজের ‘নবরূপে নবযাত্রা’ উদযাপন

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক | আপডেট: ০৭ জানুয়ারি ২০১৮

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এগিয়ে চলা ফেমাসনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের ‘নবরূপে নবযাত্রা’ অনুষ্ঠান বর্ণিল আয়োজনে সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর কাকরাইলের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠান শুরু হয়। শুরুতেই আগত অতিথিদের স্বাগত জানায় ফেমাসনিউজ পরিবার।

দিনটি পালন করা হয় নানা উৎসব-আয়োজনে। সকাল ১১টায় কেক কাটার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। আলোচনা শেষে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে মধ্যাহ্নভোজ অনুষ্ঠিত হয়। হাসি, আনন্দ আর হৃদ্যতাপূর্ণ আচরণে প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে অনুষ্ঠান। এ উপলক্ষে সকাল থেকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আগত জনপ্রিয় তারকা, টেলিভিশন, প্রিন্ট মিডিয়া ও শুভানুধ্যায়ীরা।

আগত অতিথিদের মধ্যে ছিলেন সংসদ সদস্য, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, কলামিস্ট, কবি, শিল্পী-সাহিত্যিক, সাংবাদিক, আইনজীবী, বিভিন্ন শিল্প-প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, পুলিশ কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন। এরপর কেক কাটার মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠানের মূল পর্ব।
অনুষ্ঠানে একে একে বক্তব্য রাখেন অতিথিরা। তারা ফেমাসনিউজের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনে পরামর্শ প্রদান করেন। কথা বলেন দেশ ও জাতির কল্যাণে গণমাধ্যমের ভূমিকা নিয়েও। বক্তারা বলেন, একটি গণমাধ্যমই পারে পজেটিভ বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে।

অবশ্য ফেমাসনিউজও ‘বিশ্বব্যাপী পজেটিভ বাংলাদেশ’ স্লোগানকে সামনে রেখে যাত্রা শুরু করে। এর ধারাবাহিকতায় আজ ‘নবরূপে নবযাত্রা’র অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের বক্তব্যেও তা উঠে আসে। এতে ফেমাসনিউজ পরিবার আরো উৎসাহ ও কর্মস্পৃহার প্রয়াস পায়। অতিথিদের অনুপ্রেরণা ও পরামর্শ ফেমাসনিউজের পথচলায় আরো প্রসারিত করবে।

এ প্রসঙ্গে সংসদ সদস্য কবি কাজী রোজী বলেন, ফেমাসনিউজের ‘নবরূপে নবযাত্রা’র এ অনুষ্ঠান সত্যিই মুগ্ধকর। নতুন মানেই আশা জাগানিয়া উল্লাস। নবউদ্যম, আকাঙ্ক্ষা। নতুন মানেই নব অঙ্গীকার। এভাবেই এগিয়ে যাবে ফেমাসনিউজ। এ পোর্টালটিতে এমন কিছু নেই যা পাওয়া না। আমরা এর সমৃদ্ধি কামনা করছি।

অনুষ্ঠানে ফেমাসনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি, বিশিষ্ট সমাজসেবক, জাপানের রিও মোবাইল ও বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রসাধনী এবং হেলথ প্রডাক্ট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান আইশোদোর প্রেসিডেন্ট হিমু উদ্দিন বলেন, একজন সাংবাদিকের দায়িত্ব বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করা। হিংসাত্মক মনোভাব নিয়ে যাতে কোনো সংবাদ পরিবেশন করা হয় না সেদিকে খেয়াল রাখা। সাংবাদিকের দায়িত্ব হল লেখনীর মাধ্যমে সমাজের কল্যাণে কাজ হয়- এমন তথ্যবহুল সংবাদ তুলে ধরা। অবহেলিত-নির্যাতিত মানুষের পাশে দাঁড়ানো।

তিনি বলেন, আমাদের প্রত্যাশা অনেক কিছুই ছিল, তবে প্রাপ্তিও কম নয়। মানুষের সব প্রত্যাশা তো পূরণ হয় না, তারপরও চেষ্টা চালিয়ে যেতে হয়। কঠোর পরিশ্রম করতে হয়। আমাদের জায়গা থেকে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। একদিন না একদিন আমরা আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছতে পারব ইনশাল্লাহ।

ফেমাসনিউজের প্রধান সম্পাদক আবু সাইদ বলেন, প্রতিযোগিতার অনলাইন গণমাধ্যমের যুগে একজন সাংবাদিককে সব সময় চোখ-কান খোলা রাখতে হয়, যাতে সংশ্লিষ্ট ঘটনাটি মানুষ দ্রুত সময়ে জানতে পারে। এজন্য সময়ের মূল্য দিতে হবে। প্রত্যেককে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করতে হবে। তিনি সবাইকে আরো আন্তরিক, সময়ানুবর্তিতা ও সহযোগিতার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

ফেমাসনিউজের নির্বাহী সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ফেমাসনিউজ একটি পরিবার। একটি টিমওয়ার্ক। এ পরিবারের সব সদস্যকেই তার নিজ নিজ জায়গা থেকে ভালো কিছু উপহার দিতে হবে। দায়িত্ব পালনে স্বচ্ছতা থাকতে হবে। ক্ষুদ্র ও দৃষ্টির অগোচরে ভুলগুলো শুধরে নিতে হবে। ক্ষুদ্র ভুলগুলো যাতে বৃহৎ আকারে ধরা না দেয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। আমরা কারো পক্ষে নই, আমরা জনগণের পক্ষে-এ ধ্যান-ধারণা নিয়ে কাজ করতে হবে।

এরপর দুপুরের খাবারের পর্ব শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। র‌্যাফেল ড্র'র মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

ফেমাসনিউজ২৪/আরআই/এফএম/এমএম