logo

শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৬ আশ্বিন, ১৪২৫

header-ad

যে কৌশলে এগোচ্ছে বিএনপি!

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ০৪ জুলাই ২০১৮

নতুন কৌশলে রাজনীতির মাঠে এগোতে চাচ্ছে দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকা বিএনপি। সব শেষ গাজীপুর সিটি নির্বাচন নিয়ে দেশে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। বিএনপিও অনিয়মের অভিযোগ এনে এ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে।

দলটি এসব বিষয় বিদেশি কূটনীতিকদের কাছে তুলে ধরছে। এর মাধ্যমে তারা সরকারের ওপর এক ধরনের চাপ সৃষ্টি করতে চাচ্ছে। তবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার পুরো বিষয়টিকে নাকচ করে দিয়েছে। 

বিএনপি দলীয় সূত্র জানায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে নির্বাচন কমিশন (ইসি) এবং আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের ওপর বড় ধরনের চাপ তৈরির চেষ্টা করছে বিএনপি। কৌশল হিসেবে সদ্যসমাপ্ত গাজীপুর সিটি নির্বাচনকে ঘিরে সরকার ও কমিশনের সমালোচনায় সরব দলটির নেতারা।

নির্বাচন নিয়ে ইতোমধ্যে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন মহল থেকে তাদের পর্যবেক্ষণ তুলে ধরেছে। অন্যদিকে ক্ষমতাসীনরাও এ নিয়ে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।

দলটি আগে থেকেই নির্বাচনকালীন দলীয় সরকার থাকায় দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করলেও পরে প্রত্যেকটি স্থানীয় নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। এসব নির্বাচনে বিএনপির কোথাও জয়, আবার কোথাও পরাজয় হয়েছে। জয় হলে সরকারের বিরুদ্ধে জনমতের প্রতিফল এবং হেরে গেলে নির্বাচন কমিশনের ব্যর্থতা, সরকারের নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গি না থাকার অভিযোগ তুলেছেন বিএনপির নেতারা।

জানা যায়, খুলনা ও গাজীপুর সিটি নির্বাচনকে পুঁজি করে নির্বাচন কমিশন ও সরকারের ওপর বড় ধরনের চাপ তৈরির চেষ্টা করছে বিএনপি। দেশের জনগণ ছাড়াও বিদেশি উন্নয়ন সহযোগী, ঢাকায় নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত-হাইকমিশনার, বিদেশি গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়মিত এসব বিষয়ে ব্রিফ করছে বিএনপি।

এর মধ্যেই গত বৃহস্পতিবার মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া ব্লুম বার্নিকাট বলেছেন, খুলনা ও গাজীপুর সিটি নির্বাচনে অনিয়ম-জালিয়াতি এবং রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও প্রার্থীর পোলিং এজেন্টদের গ্রেফতার-হয়রানির খবরে যুক্তরাষ্ট্র উদ্বিগ্ন। বাংলাদেশের নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও বিশ্বাসযোগ্য হচ্ছে কিনা- তার সঙ্গে ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের পরিকল্পনাকেও মিলিয়ে দেখা হচ্ছে।

বার্নিকাট বলেন, বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র একই গণতান্ত্রিক নীতি ও ভিত্তির ওপর প্রতিষ্ঠিত। বিষয়টি দুই দেশের অবস্থানকে শক্তিশালী করেছে। আর ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের স্থিতিশীলতার জন্য বাংলাদেশের শক্তিশালী অবস্থান গুরুত্বপূর্ণ। তবে সরকার বার্নিকাটের এসব বক্তব্যকে প্রত্যাখ্যান করেছে। ক্ষমতাসীন দলের কয়েক নেতা বলছেন, ভিন্ন দেশের একজন রাষ্ট্রদূত থেকে এ ধরনের বক্তব্য আশা করা যায় না।

এ বিষয়ে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, সিলেট, বরিশাল ও রাজশাহীতে যদি খুলনা ও গাজীপুর স্টাইলে নির্বাচন হয়, তাহলে দুটো জিনিস আমরা জনগণের কাছে পরিষ্কার করতে পারব। তা হলো- এক, দেশের মানুষের কাছে আমরা প্রমাণ করতে পারলাম দলীয় সরকারের অধীনে কোনো দিন নির্বাচন সুষ্ঠু হয় না; দ্বিতীয়টি হলো- নতুন করে চিন্তা করতে হবে যে সাধারণ নির্বাচনে কোনো দলীয় সরকারের অধীনে কোনো অবস্থাতেই আমরা নির্বাচন করব কিনা?

সুষ্ঠু নির্বাচন কমিশন সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, তল্পিবাহক ও আজ্ঞাবাহক প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচন কমিশন ইতোমধ্যে প্রমাণিত হয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানকে সংবিধানে যে অধিকার দেয়া হয়েছে, যে ক্ষমতা দেয়া হয়েছে- সেই ক্ষমতা প্রয়োগের মতো শক্তি, ক্ষমতা বা সাহস এ নির্বাচন কমিশনের নেই। যার জন্য এ কমিশন থাকা না থাকা একই ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ফেমাসনিউজ২৪.কম/আরআই/আরবি