logo

মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮ | ১০ বৈশাখ, ১৪২৫

header-ad

ছোট্ট মেয়ের যে ছবি ঝড় তোলে বিশ্বজুড়ে! (ভিডিও)

অন্যরকম ডেস্ক | আপডেট: ১০ জানুয়ারি ২০১৮

হাজারো মানুষ নীরবে জল ফেলেছেন ছোট্ট মেয়েটির জন্য। বুকফাটা কষ্টে ডুকরে উঠেছেন, একাকী, নির্জনে! আবার সেই অসহায় মুখের একটি ছবির দৌলতেই বেঁচে গেছে তারই মতো হাজারো প্রাণ।

ছোট্ট শিশুটির নাম আমাইরা স্যাঞ্চেজ। বেশিরভাগ মানুষই তাকে চেনে না। আবার চিনতেও পারেন। নামে নয়, ছবি দেখে। আত্মত্যাগের নিষ্পাপ সে ছবি একসময় ঝড় তোলে লাখো হৃদয়ে।

হঠাৎ ঘুমভাঙা কলম্বিয়ার এক আগ্নেয়গিরি এভাবেই ধ্বংসযজ্ঞ শুরু করেছিল। প্রবল কম্পনে ধসিয়ে দেয় আশপাশের গ্রাম। কেউ যেন কাদামাটি গুলে ঢেলে দিয়েছে। ভেঙে পড়ে তাদের ঘরবাড়ি সংসার। সেই ধ্বংস্তূপের মধ্যেই একটা মুখ ছিল আমাইরা স্যাঞ্জেজ। সদ্য কিশোরীই বলা যায়, বয়স সবে ১৩। ১৯৮৫।

একগলা পানিতে ডুবেছিল মেয়েটি। উদ্ধারকারীরা আপ্রাণ চেষ্টা করছেন, পানি থেকে তাকে তুলে আনতে, পারছেন না। তার পা কোথায়, কীভাবে যে আটকে রয়েছে, তা বোঝা সম্ভব ছিল না উদ্ধারকারীদের পক্ষে। একটি পাম্প থাকলেই হয়তো সব সমস্যার সমাধান হয়ে যেতে পারত। পাম্প করে, জমা কাদা-পানি সরিয়ে, মেয়েটিকে তারা উদ্ধার করতে পারতেন। কলম্বিয়া সরকারের কাছে সেই আর্জি জানিয়েছিলেন উদ্ধারকারীরা। ঘণ্টার পর ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও পাম্প আর পৌঁছেনি।

আমাইরা ততক্ষণে জেনে গেছে পরিণতির কথা। বাঁচার আকুতি ছেড়ে, সে তখন হাসছে গাইছে খাচ্ছে...। আবার গলাজলে ডুবে থেকেই, জটলা হয়ে থাকা সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছে। এভাবেই একটা সময় আসে, মৃত্যুর কোল ঢোলে পড়ে সেই আমাইরা।

আমাইরার মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা আগে এ দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি করেন ফ্রাঙ্ক ফোরনিয়ার। তার ফ্রেমবন্দি নিষ্পাপ মুখের এই ছবিটিই আলোড়ন ফেলে বিশ্বজুড়ে। চারপাশ থেকে আন্তর্জাতিক সাহায্য আসতে শুরু করে কলম্বিয়ায়। আমাইরা মরে অন্যদের বাঁচার ব্যবস্থা করে যায় নীরবে।

ফেমাসনিউজ২৪/আরআই/আরবি