logo

বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ | ৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

বাবা-মায়ের স্বপ্ন শেষ করে দিল পুচকে শিশুটি!

অন্যরকম ডেস্ক | আপডেট: ০৮ অক্টোবর ২০১৮

টাকা পয়সা যত সাবধানে রাখা যায় ততই ভালো। বাড়িতে ছেলেপিলে থাকলে কথাই নেই। কিন্তু সে সাবধানবাণী তো অনেকই রয়েছে। কিন্তু শোনে আর কজন। এমনই এক অসাবধানতার জেরে খেসারত দিতে হল এক মার্কিন দম্পতিকে।

মার্কিন মুলুকের উটার বাসিন্দা জ্যাকি এবং বেন বেনলাপ। প্রায় এক বছর ধরে তারা টাকা জমাচ্ছিলেন স্থানীয় ফুটবল লিগের সিজন টিকিট কিনবেন।
টাকা জমিয়ে রেখেছিলেন একটি মুখবদ্ধ খামে। উদ্দেশ্য ছিল টিকিট কিনতে গিয়ে এক্কেবারে খুলবেন খামের মুখ।

একদিন বাদেই টিকিট কিনতে যাওয়ার কথা। সেই মতো মুখবন্ধ খামটিকে টেবিলের উপর রেখে কাজে বেরিয়ে যান দুজনেই। কিন্তু কপালে না থাকলে কি আর ভালো কিছু পাওয়া যায়?

দম্পতির কষ্টের সেই সঞ্চয়ে হয়তো রাহুর দৃষ্টি ছিল। খামটি হাতে চলে যায় বছর দুইয়ের ডানপিটে ছেলে লিওর হাতে। প্রথমে সে খামটিকে ভালো করে দেখে। কী জিনিস বুঝতে না পেরে একটি যন্ত্রের মধ্যে ফেলে কুচি কুচি করে কাটে। তারপর এক জায়গায় মার্কিন ডলারের দেহাবশেষ জড়ো করে ঘটনাস্থল থেকে কেটে পড়ে।

বাড়িতে ফিরে এই কাণ্ড দেখে চক্ষু চড়কগাছ বেনের। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে সে জানায়- ওই খামটির ভেতরে ১ গাজার ৬০ মার্কিন ডলার ছিল। ভারতীয় বাজারে যার অর্থমূল্য প্রায় ৮০ হাজার টাকা।

এত টাকা একসঙ্গে এভাবে নষ্ট হওয়ায় বেশ দুঃখই পেয়েছেন। নেটিজেনরা অবশ্য এতে দুঃখের চেয়ে মজাই বেশি পাচ্ছেন। খুদের কীর্তিকে অনেকেই হাসি ঠাট্টার ছলে নিচ্ছেন।

এসবের মধ্যে ওই দম্পতির একটি সান্ত্বনার কারণও রয়েছে অবশ্য । মার্কিন মুলুকে এই ছেড়া নোটের জন্য সরকারের আলাদা দপ্তর আছে। সেখানে নোটের ছেড়া অংশগুলো জমা দিলে এক-দু বছরের মধ্যেই তারা টাকা ফেরতও পেয়ে যাবেন!

ফেমাসনিউজ২৪.কম/আরআই/আরবি