logo

শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯ | ৬ বৈশাখ, ১৪২৬

header-ad

কবরে গুপ্তধন, টাকার অঙ্ক জানলে পিলে কাঁপবে!

অন্যরকম খবর ডেস্ক | আপডেট: ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

আয়কর দফতরের নজর এড়াতে কবরে ঢুকিয়ে রাখা হয়েছিল হিসাববহির্ভূত কোটি কোটি টাকা ও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র। মাটিতে পুঁতে রাখা সেই সোনা, হিরা আর টাকার মোট মূল্য ৪৩৩ কোটি টাকা।

ভারতের চেন্নাই আর কোয়মবত্তূরে ‘ব্রহ্মাণ্ডমাই’ নামে একটি ‘সারাভানা স্টোর’ এবং দু’টি প্রোমোটার সংস্থা ‘লোটাস গ্রুপ’ ও ‘জিস্কোয়্যার’-এর অফিসে এক সপ্তাহেরও বেশি ধরে তল্লাশি চালিয়ে কবর খুঁড়ে ওই গুপ্তধনের হদিশ পেয়েছেন আয়কর কর্তারা।

আয়কর কর্তারা জানিয়েছেন, সেই টাকা, হিরা, সোনা রাখা হয়েছিল কয়েকটি কবরে। সেগুলি খুঁড়ে হিসাববহির্ভূত নগদ ২৫ কোটি টাকা, ১২ কিলোগ্রাম ওজনের সোনা এবং ৬২৬ ক্যারাট ওজনের হিরা উদ্ধার করা হয়।

আয়কর হানাদারি একইসঙ্গে চালানো হয়েছিল চেন্নাই ও কোয়মবত্তূরের ৭২টি জায়গায়। সবক’টি জায়গাতেই রয়েছে ওই সারাভানা স্টোরের মালিক যোগারাথিনাম পোন্ডুরাই ও তার সহযোগী রামজায়াম ওরফে বালার স্থাবর সম্পত্তি। বালা দু’টি প্রোমোটার সংস্থা ‘লোটাস গ্রুপ’ ও ‘জিস্ক্যোয়্যার’-এর মালিক।

এক আয়কর কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তাদের অভিযানের খবর আগেভাগেই পেয়ে গিয়েছিলেন পোন্ডুরাই ও বালা। পুলিশেরই কাছ থেকে সেই খবর তারা পেয়ে গিয়েছিলেন। তখন তারা একটি এসইউভি গাড়িতে টাকা, সোনা, হিরা চাপিয়ে পালিয়ে যান। সেগুলি দূরের একটি জায়গায় গিয়ে মাটিতে পুঁতে দেন।
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম