logo

বুধবার, ২৩ মে ২০১৮ | ৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫

header-ad

শিগগিরই সিরিয়াকে নয়া ক্ষেপণাস্ত্র দেবে রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | আপডেট: ২৫ এপ্রিল ২০১৮

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, বিশ্বের চিহ্নিত কিছু দেশ সন্ত্রাসীদের স্বার্থে কাজ করছে। এর মাধ্যমে তারা আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করছে ও আঞ্চলিক নিরাপত্তা হুমকির মুখে ঠেলে দিচ্ছে। প্রয়োগ করছে সামরিক শক্তি। সন্ত্রাসীদের সহযোগিতা করতেই পাশ্চাত্য সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে।

আজ বুধবার রাশিয়ার সোচি শহরে আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীদের কাছে পাঠানো এক বার্তায় এসব কথা বলেন তিনি।

পুতিন বলেন, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করতে কয়েকটি দেশ একতরফা নীতি অনুসরণ করছে। এসব দেশ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দীর্ঘদিন ধরে চলা রীতি-নীতির তোয়াক্কা না করে একক সিদ্ধান্তে সামরিক শক্তি প্রয়োগের চেষ্টা করছে। এসব দেশের একতরফা নীতির কারণে রাজনৈতিক ও সামাজিক অস্থিরতা সৃষ্টি হচ্ছে এবং স্থানীয় সংঘাত ও সংকট ছড়িয়ে পড়ছে।

এদিকে শিগগিরই সিরিয়ার কাছে নতুন ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর শীর্ষস্থানীয় কমান্ডার জেনারেল সের্গেই রুদস্কয়।

তিনি বলেন, রুশ বিশেষজ্ঞরা সিরিয়ার সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়া অব্যাহত রাখবে। খুব শিগগিরই সিরিয়াকে যে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দেয়া হবে তা ব্যবহারের প্রশিক্ষণ বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে। তবে সিরিয়াকে কোন মডেলের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দেয়া হবে তা স্পষ্ট করেননি তিনি।

সিরিয়ায় ট্রাম্পের নির্দেশে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর থেকেই দেশটিকে এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দেয়ার কথা বিবেচনা করছে রাশিয়া।

গত ১৪ এপ্রিল মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ার ওপর ক্ষেপণাস্ত্র হামলার নির্দেশ দেন। এরপরই সিরিয়ার স্থানীয় সময় ভোর ৪টার দিকে আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্সের সামরিক বাহিনী ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায়।

হামলার পর রাশিয়া ঘোষণা করে, তারা সিরিয়াকে এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দেয়ার কথা বিবেচনা করতে পারে, যাতে এ ধরনের আগ্রাসনের মুখে সিরিয়া নিজেকে রক্ষা করতে পারে।

চলতি মাসের শুরুতে আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্স সিরিয়ার দামেস্ক ও হোমসে সমন্বিত ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। তবে এসব ক্ষেপণাস্ত্রের বেশিরভাগই ভূপাতিত করেছে সিরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ইউনিট।
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম