logo

মঙ্গলবার, ২২ মে ২০১৮ | ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫

header-ad

চলন্ত ট্রেন থেকে ঝাঁপ মেরে যেভাবে তরুণীর ধর্ষণ ঠেকাল পুলিশ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | আপডেট: ২৫ এপ্রিল ২০১৮

ভারতে এমন সময় একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে এবং পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার খবর সামনে আসছে, সেই সময় এক রেলওয়ে পুলিশের এক কনস্টেবল নিজের জীবন বিপন্ন করে এক তরুণীর ধর্ষণ ঠেকিয়ে নজির সৃষ্টি করলেন।

ধর্ষণের চেষ্টার দায়ে ২৬ বছরের এস সত্যরাজকে পরে গ্রেপ্তার করে আরপিএফ।

সোমবার রাতের ট্রেনে চেন্নাইয়ের ভেলাচেরি থেকে চেন্নাই বিচ যাচ্ছিলেন রেল পুলিশের নাইট স্কোয়াডের সদস্য উপপরিদর্শক এস সুব্বাইয়া, কনস্টেবল কে শিবাজি এবং আরও এক কনস্টেবল। রাত ১১টা ৪৫ মিনিটের দিকে ট্রেন যখন চিন্তাদ্রিপেট স্টেশন ছাড়ে, ঠিক তখনই পাশের কোচ থেকে এক নারীর আর্তচিৎকার শুনতে পান তারা। ট্রেনে ভেস্টিবিউল না থাকায় পরের স্টেশন পার্ক টাউনে ট্রেন ঢোকা পর্যন্ত অপেক্ষা করেন তারা।

প্ল্যাটফর্মে ট্রেনের গতি একটু কমতেই চলন্ত ট্রেন থেকে ঝাঁপ মারেন কনস্টেবল শিবাজি। চলন্ত ট্রেনের পাশে পাশে ছুটে পরের কোচে লাফিয়ে ওঠেন তিনি। দেখেন, এক তরুণীর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছে এক ব্যক্তি।

অজ্ঞান ওই তরুণীর জামা-কাপড় ছিঁড়ে গেছে, ঠোঁট কেটে রক্ত পড়ছে। সত্যরাজ নামে ওই ব্যক্তিকে ধাক্কা মেরে সরিয়ে দেন তিনি। ততক্ষণে ট্রেন পুরোপুরি থেমে যাওয়ায় পাশের কোচ থেকে ছুটে আসেন অন্যরাও।

তরণীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা স্থিতিশীল।

রেল পুলিশের প্রধান আইজিপি মানিকাভেল কনস্টেবল শিবাজিকে পাঁচ হাজার রুপি পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দেন। সূত্র : এই সময়
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম