logo

সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ | ৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

যুবরাজের প্রস্তাবে না, ফোনে কথা শেষেই খাসোগিকে হত্যা!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | আপডেট: ২২ অক্টোবর ২০১৮

সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য বেরিয়ে আসছে। তবে তাকে হত্যায় সৌদি আরবের সরাসরি সম্পৃক্তার অভিযোগ পরিষ্কার হয়ে উঠেছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার আগে তার সঙ্গে সরাসরি ফোনে কথা বলেন সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। আর ফোন কেটে দেয়ার পরই খাসোগিকে হত্যা করা হয়।

তুরস্কের সরকারপন্থি পত্রিকা ডেইলি ‘ইয়েনি সাফাক’র প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে নিউজ.কম.এইউ।

ডেইলি ইয়েনি সাফাক জানায়, চলতি মাসের প্রথমদিকে তুরস্কের সৌদি আরবের কনসুলেটে ওয়াশিংট পোস্টের কলামিস্ট খাসোগিকে হত্যার আগ মুহূর্তে সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান তার সঙ্গে ফোনে কথা বলেন।

তুরস্কের সরকারি কর্মকর্তারা এখন পর্যন্ত এ বিষয়টি যাচাই বাছাই বা প্রকাশ না করলেও ওই পত্রিকাটি এ খবর দিয়েছে। তবে এরই মধ্যে সরকারপন্থি অনেক পত্রিকা ও মিডিয়া আগেভাগে এমন সব তথ্য ফাঁস করছে, যা তদন্তে সত্য প্রমাণিত হয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সৌদি কনসুলেটে ঢোকার পর খাসোগিকে আটক করা হয়। এরপর মোহাম্মদ বিন সালমান ফোনে তাকে রিয়াদে ফিরে আসার জন্য রাজি করানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু রিয়াদে ফিরে গেলেই তাকে গ্রেফতার কিংবা হত্যা করা হবে-এমন আতঙ্ক থেকে তিনি প্রিন্সের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন।

আর ওই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করার সেই ফোন সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পরই গুপ্তঘাতকরা খাসোগিকে হত্যা করে।

ফেমাসনিউজ২৪.কম/আরআই/আরবি