logo

শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৭ | ৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪

header-ad

‘মুসলমান হওয়াটাই কি তাদের অপরাধ’?

ফেমাস নিউজ ডেস্ক | আপডেট: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭

হেফাজতে ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফী বলেছেন, রোহিঙ্গারা আমাদের ভাই-বোন। নির্যাতিত, নিপীড়িত, অসহায় মজলুম। তাদের সাহায্য করা আমাদের ঈমানি দায়িত্ব।

বুধবার রোহিঙ্গা ইস্যুতে দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করে দেয়া এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন তিনি।

রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন, গণহত্যা বন্ধের দাবিতে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দেশব্যাপী বিক্ষোভ সমাবেশ ও গণমিছিল করবে হেফাজতে ইসলাম।

বিক্ষোভ কর্মসূচি সফল করার জন্য সবার প্রতি আহবান জানিয়েছেন আল্লামা শফী।

বিবৃতিতে শাহ আহমদ শফী বলেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর সরকারি বাহিনী ইতিহাসের বর্বরতম হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছে। নির্যাতিত মুসলিম মা-বোনদের রক্ত নিয়ে যারা হোলি খেলায় মেতে উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা রাষ্ট্র ও জনগণের নৈতিক কর্তব্য।

সরকারের উদ্দেশ্যে হেফাজতের আমির বলেন, আপনারা সোচ্চার হোন, কূটনৈতিক চাপ প্রয়োগ করুন। মানবতার শত্রুদের মোকাবেলায় বিশ্ব মুসলিম নেতারা ও রাষ্ট্রগুলোকে শামিল করুন। দেশের জনসাধার এ ব্যাপারে ঐকব্যে পোষণ করবে।

জাতিসংঘ এবং ওআইসিকে মিয়ানমারের জাতিগত নিপীড়ন বন্ধের জন্য জোরালো ভূমিকা রাখার আহবান জানিয়েছেন আহমদ শফী। বলেন, মুসলমান হওয়াটাই কি আরাকানের নির্যাতিত নাগরিকদের অপরাধ?

তিনি বলেন, অং সান সু চি'র বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা দায়ের করে বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে। রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব, মৌলিক স্বাধীনতা ও মানবাধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে।

২৪ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর চালানো হচ্ছে ইতিহাসের জঘন্যতম নির্যাতন। প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে ছুটে আসছেন তারা। এ পর্যন্ত ৩ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশের কক্সবাজারে বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছেন তারা। সব মিলিয়ে ৯ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অবস্থান করছেন।

ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম