logo

সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৩ পৌষ, ১৪২৫

header-ad

খেলতে খেলতে ফাঁস, হারিয়ে গেল ছেলেটি

ইসমাইল হোসেন বাবু, কুষ্টিয়া | আপডেট: ১৮ মার্চ ২০১৮

স্কুল বন্ধ। মা গেছেন ছোট মেয়েটিকে ডাক্তার দেখাতে। বাড়িতে তো আর কাজ নেই। তাই খেলাধুলা করছিল ছেলেটি। এমন খেলাই না খেলল ছেলেটি, এই খেলা-ই তা জীবন কেড়ে নিল।
ছোট ছেলেটির নাম সোহাগ হোসেন (৭)। সে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নেয় কবুরহাট দোস্তপাড়া গ্রামের আল ইসলাম ব্যাপারীর ছেলে। সোহাগ ব্রাক স্কুলের ছাত্র।

মায়ের ওড়না নিয়ে ‘গলায় ফাঁস’ খেলা করছিল স। খেলতে খেলতে গলায় ফাঁস লেগে এক সময় শ্বাসরোধে মারা যায় সোহাগ।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, শনিবার দুপুরে সোহাগের মা তার ছোট মেয়েকে ডাক্তার দেখাতে পোড়াদহ যান। এদিকে স্কুল বন্ধ থাকায় তার ঘরে থাকা মায়ের ওড়না নিয়ে গলায় ফাঁস খেলা করছিল। খেলতে খেলতে গলায ফাঁস লেগে মারা যায় সে।

পরে সোহাগের মা জানু বেগম এসে ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ দেখে ডাকাডাকি করতে থাকেন। এ সময় মায়ের চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এসে সোহাগের লাশ ঝুলতে দেখে দরজা ভেঙে ফেলে। তখন সোহাগকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

ফেমাসনিউজ২৪/আরআই/আরবি