logo

মঙ্গলবার, ২২ মে ২০১৮ | ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫

header-ad

কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধ’, শীর্ষ সন্ত্রাসী নিহত

ইসমাইল হোসেন বাবু, কুষ্টিয়া | আপডেট: ১৫ মে ২০১৮

কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শীর্ষ সন্ত্রাসী হামিদুল বাহিনীর প্রধান কুখ্যাত সন্ত্রাসী হামিদুল ইসলাম (৪৬) নিহত হয়েছেন।

নিহত হামিদুল ইসলাম সদর উপজেলার ইটভাটা এলাকার মৃত রুস্তম আলীর ছেলে।

আজ মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে সদর শহরের গড়াই নদীর বাঁধ সংলগ্ন চর মিলপাড়ার বালুর মাঠে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। জানা যায়, হামিদুল তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ বিভিন্ন অপরাধের একাধিক মামলা রয়েছে।

র‌্যাবের দাবি, এ ঘটনায় তাদের ২ সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাব-১২ কোম্পানি কমান্ডার এম মুহাইমিনুর রশিদ জানান, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটানোর উদ্দেশ্যে একদল সন্ত্রাসী গড়াই নদীর পাড় সংলগ্ন বালুরমাঠে অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদ পেয়ে র‌্যাবের একটি টহলদল ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। জবাবে র‌্যাব ও পাল্টা গুলি চালালে বন্দুকযুদ্ধে একজন গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

র‌্যাব জানতে পারে, বন্দুকযুদ্ধে নিহত হামিদুল বাহিনীর প্রধান শীর্ষ সন্ত্রাসী হামিদুল ইসলাম। তিনি পুলিশের তালিকাভুক্ত একজন শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ বিভিন্ন অপরাধের একাধিক মামলা রয়েছে। বন্দুকযুদ্ধে ২ র‌্যাব সদস্য আহত হলে তাদের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ১টি দেশি পিস্তল, ১টি বিদেশি পিস্তুল, ৫ রাউন্ড গুলি ও ২টি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য ২০০৭ সালে বন্দুকযুদ্ধে হামিদুল বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড তার ছোট ভাই রাশিদুল ইসলাম নিহত হয়।

ফেমাসনিউজ২৪.কম/আরআই/আরবি