logo

সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ | ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

বিয়ের আনন্দ কেড়ে নিল বাস, নিহত বেড়ে ৭

নরসিংদী প্রতিনিধি | আপডেট: ১৪ আগস্ট ২০১৮

নরসিংদীর শিবপুরে বাস ও বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশুসহ সাতজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হন কমপক্ষে ১৪ জন।

তবে নিহতদের মধ্যে চারজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলো- সজল (২০), সিগ্ধা (৮), প্রান্তিকা (৬) ও বৃষ্টি (৭)। নিহতদের সবার বাড়ি চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলায়। আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুরের সোনাইমুড়িরটেক এলাকায় এ দুঘটনা ঘটে।

আহতদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ সকালে রায়পুরা থেকে বিবাহ শেষ হওয়ার পর বর-কনেকে নিয়ে বরযাত্রীবাহী একটি মাইক্রোবাস চাঁদপুর যাচ্ছিল। মাইক্রোবাসটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুরের সোনাইমুড়িরটেক এলাকায় পৌঁছলে ঢাকা থেকে সিলেটগামী মিতালী পরিবহনের একটি যাত্রী বাসের সামনের চাকা বাস্ট হয়ে যায়। এ সময় মিতালি পরিবহনের বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বরযাত্রীবাহী হাইয়েস মাইক্রোবাসের উপর উঠে পড়ে।

তারা আরও জানান, এতে মাইক্রোবাসটি দমড়েমুচড়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলেই মাইক্রোবাসের তিন যাত্রী মারা যান। বর-কনেসহ আহত হন আরও ১৭ যাত্রী। পরে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠালে সেখানে আরও একজনের মৃত্যু হয়। এদিকে আহতদের অবস্থার অবনতি হলে বর-কনে ও নারী ও শিশুসহ ১৭ জনকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

পুলিশ সূত্র জানায়, ঢাকা থেকে মিতালী পরিবহনের একটি বাস সিলেট যাচ্ছিল। বাসটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুরের সোনাইমুড়ি এলাকায় পৌঁছলে সামনের চাকা ফেটে যায়। এ সময় বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিপরীত দিক থেকে আসা বরযাত্রীবাহী একটি হাইয়েস মাইক্রোবাসের সামনে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মাইক্রোবাসের তিন যাত্রী মারা যান। আহত হন আরও ছয় যাত্রী। পরে আশপাশের লোকজন এসে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সার্জেন্ট হাফিজ দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বাসটিকে আটক করা গেলেও চালক পালিয়ে গেছে।

ফেমাসনিউজ২৪.কম/আরআই/আরবি