logo

বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | ৬ আশ্বিন, ১৪২৪

header-ad

বিনা খরচে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের দিন শেষ!

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

সম্ভবত বিনা খরচে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের দিন শেষ হতে চলেছে। এই মুহুর্তে মার্ক জুকারবার্গের ফেসবুকের হাতে রয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। সূত্রের খবর হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে আয়ের পথ খুঁজে পেয়েছে ফেসবুক।

হোয়াটসঅ্যাপ মেসেঞ্জার থেকে আয় বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছে ফেসবুক। এর জন্য হোয়াটসঅ্যাপে বিজনেস চ্যাট ফিচার যোগ হতে যাচ্ছে। ফিচারটি ব্যবহার করে যেসব কোম্পানি তাদের গ্রাহকদের সঙ্গে ব্যবসায়িক যোগাযোগ রক্ষা করবে, তাদের কাছ থেকে অর্থ আদায় করা হবে। সারা বিশ্বের ১০০টির বেশি দেশে ১২০ কোটির বেশি গ্রাহককে বিনা খরচে পরিষেবা দিয়ে থাকে হোয়াটসঅ্যাপ। কোনও বিজ্ঞাপন ছাড়াই চলছে এই পরিষেবা। হোয়াটসঅ্যাপের নতুন বিজনেস অ্যাপ গ্রাহকদের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ করে দেবে। এই বিজনেস অ্যাপ বর্তমানে পরীক্ষার পর্যায়ে রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ছোট সংস্থাগুলিকে বিনা খরচে এই পরিষেবা দেওয়া হলেও, পরবর্তীকালে নির্ধারিত চার্জ দিতে হবে। ব্যবহারকারীরা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে কোন সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করতে চায় তা নিজেদের বাছতে হবে।

সূত্রের খবর, সবুজ ব্যাজ ফিচারের একটি পাইলট প্রকল্প চালু করেছে হোয়াটসঅ্যাপ। এর মাধ্যমে ব্যবসায়িক কন্টাক্টের পাশে একটি সবুজ ব্যাজ দেখা য়াবে। ইতিমধ্যেই বুকমাইশো-এর মতো বেশ কিছু জনপ্রিয় সংস্থার সঙ্গে তাদের এই নতুন অ্যাপের পরীক্ষা শুরু করেছে হোয়াটসঅ্যাপ। তবে তা কবে সামনে আসবে, এখনও জানানো হয়নি। হোয়াটসঅ্যাপের তরফেও কবে থেকে চার্জ নেওয়া হবে, তাও জানানো হয়নি। ২০০৯ সালে যাত্রা শুরু করেছিল হোয়াটসঅ্যাপ। ২০১৪ সালে একহাজার ৯২০ কোটি মার্কিন ডলারে হোয়াটসঅ্যাপকে কিনে নেয় ফেসবুক। প্রথমের দিকে, ব্যবহারকারীরা প্রথম বছর বিনামূল্যে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারতেন। পরে সেটি ব্যবহার করতে গেলে বছরে ০.৯৯ মার্কিন ডলার ব্যয় করতে হত।

 

ফেমাসনিউজ২৪.কম/এসআর/এসএম