logo

রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ | ৩ পৌষ, ১৪২৪

header-ad

সোফিয়াকে বিয়ে করতে চাইলে কী বলল সে?

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭

সোফিয়া। বিশ্বের প্রথম নাগরিকত্ব পাওয়া রোবট। মানবীর আদলে তৈরি এই রোবট কথা বলতে পারে। প্রশ্ন শুনে উত্তর দেয়। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে সে কণ্ঠ ও চেহারা শনাক্তও করতে পারে; বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত ব্যবহার করে ক্রমাগত বাড়িয়ে নিতে পারে নিজের জ্ঞান।

সেই সোফিয়া বাংলাদেশে আসছে। বেশ কদিন ধরেই এটি ছিল আলোচনার কেন্দ্রে। তাই তাকে এক নজর দেখার জন্য প্রযুক্তিপ্রেমিদের মাঝে ছিল প্রবল আগ্রহ। আর তারই প্রমাণ মিলল বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে।

বুধবার সম্মেলন কেন্দ্রে তিল ধারণের ঠাই ছিল না। সকাল থেকেই আসতে থাকে মানুষ। সবচেয়ে বেশি দেখা যায় তরুণদের। এমনকি অভিভাবকদের সঙ্গে বাচ্চারাও আসে। তারাও দেখতে চায় সোফিয়াকে। কথা বলতে চায় তার সঙ্গে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে এর সংখ্যা। সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭ উদ্বোধন করেন। তার সঙ্গে সোফিয়ার কথা হয়। ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে সে বলে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের মহান নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা, সে তা জানে। প্রধানমন্ত্রীর নাতনির নাম যে তার মতোই সোফিয়া- তাও তার অজানা নয়।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের ‘হল অব ফেইমে’ যখন সোফিয়া কথা বলা শুরু করে তখন পুরো হল জুড়ে করতালি শুরু হয়ে যায়। আনন্দে ফেটে পড়ে মানুষ।

সোফিয়ার সঙ্গে কথা বলেন গ্রের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গাউসুল আলম শাওন। তিনি মজার মজার প্রশ্ন করেন। সোফিয়াও মজা করে উত্তর দেয়। সোফিয়ার কথোপকথনের কিছু অংশ দেয়া হলো।

হ্যালো সোফিয়া, কেমন আছ?

-ধন্যবাদ আমি ভালো আছি। আমি গর্বিত। বাংলাদেশে এসে। আই অ্যাম আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্ট ইন্টিগ্রেটেড রোবট সোফিয়া।

শাওন সোফিয়ার কাছে ইংরেজিতে জানতে চান, সোফিয়া আপনি কি জানেন, এখন কোথায় আছেন? জবাবে সে জানায়, আমি বাংলাদেশে আছি। এখানে আজ থেকে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড শুরু হয়েছে। আমার সামনে হাজারো তরুণ আমার কথা শোনার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছেন।

সোফিয়াকে আবার প্রশ্ন-তুমি কী জানো তুমি সুন্দর?

হেসে সে বলে, হ্যাঁ জানি।

তারপর তাকে বলা হয়, তুমি যে পোশাক পরে আছো সেটা সম্পর্কে জানো?

সে বলে, আমি জানি এটা তোমাদের ট্র্যাডিশনাল পোশাক ‘জামদানি’। বিশ্বে তোমরা এটাকে উপস্থাপন করো।

বাঙালি মেয়ের সাজে হলুদ-সাদা জামদানির টপ আর স্কার্ট পরে সোফিয়া হল অব ফেইমের মঞ্চে উপস্থিত হয়েছিল। তাই তাকে এমন প্রশ্ন করা হয়।

সোফিয়াকে শাওন মজা করে বলেন, তোমাকে আমার ভালো লাগে। বিয়ে করতে চাই। সে হেসে বলে, তোমার ঘরে সুন্দরী স্ত্রী আছে, তার দিকে নজর দাও।

সোফিয়াকে আবারো প্রশ্ন করা হয়, ২০৩০ সালের মধ্যে আটশ’ মিলিয়ন রোবট বিশ্ব জুড়ে থাকবে। এতে কী মানুষের জন্য কোনো হুমকি আছে? তার উত্তর সে বলে, না এতে কোনো হুমকি নাই। কারণ মানুষই তো রোবট তৈরি করে।

এরপর যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সোফিয়াকে প্রশ্ন করেন। তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্পর্কে তোমার কী ধারণা? সোফিয়া জানায়, তোমরা অনেক ভালো করছ। ২০২১ সালের মধ্যে ২ মিলিয়ন লোকের কর্মসংস্থান করবে তোমরা।

শেষে পলক তাকে জিজ্ঞেস করেন, বাংলাদেশ কী সোফিয়া তৈরি করতে পারবে? সে বলে, না তোমরা সোফিয়া তৈরি করতে পারবে না। অন্য রোবট তৈরি করতে পারবে।

৫ ফুট ৪ ইঞ্চি উচ্চতার সোফিয়াকে তৈরি করেছে হংকংয়ের হ্যানসন রোবোটিকস। হলিউড অভিনেত্রী অড্রে হেপবার্নের চেহারার আদলে তৈরি এই রোবট প্রশ্ন শুনে ইংরেজিতে তার উত্তর দিতে পারে। গত অক্টোবরে রিয়াদে ফিউচার ইনভেস্টমেন্ট ইনিশিয়েটিভ শীর্ষক এক সম্মেলনে সোফিয়াকে দেয়া হয় সৌদি আরবের নাগরিকত্ব। বিশ্বের কোনো দেশে রোবটকে নাগরিকত্ব দেয়ার এমন ঘোষণা এটাই প্রথম।

ফেমাসনিউজ২৪/আরঅ্যা/আরইউ