logo

সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৮ আশ্বিন, ১৪২৫

header-ad

কোন অপারেটরের কলরেট কত টাকা

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ১৬ আগস্ট ২০১৮

সোমবার মধ্যরাত থেকে সব মোবাইল অপারেটরে কলরেট অভিন্ন সর্বনিম্ন ৪৫ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২ টাকা কার্যকর করার নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। সরকারের নির্দেশে এই নির্দেশনা দিয়েছে বিটিআরসি।

ওই নির্দেশনায় সর্বোচ্চ কলরেট নির্ধারণ করা হয়েছে প্রতি মিনিট ২ টাকা। কোনো অপারেটর গ্রাহকের কাছ থেকে প্রতি মিনিটের কলের জন্য ২ টাকার বেশি চার্জ নিতে পারবে না। এর ফলে মোবাইল ফোনে কথা বলার ক্ষেত্রে অফনেট ও অননেট কলরেটের কোনো পার্থক্য থাকছে না।

অপারেটরদের দাবি, নতুন কলরেটে গ্রাহকের ফোন করার খরচ কমবে। কারণ এত দিন অননেট কলে সর্বনিম্ন মূল্য কাগজে-কলমে ২৫ পয়সা হলেও প্রকৃতপক্ষে এ ধরনের কলে গড়ে গ্রাহকের খরচ হতো ৪০ পয়সা। আর অফনেট অর্থাৎ অন্য অপারেটরে কল করার খরচ পড়ত ৯০ পয়সা থেকে ১ টাকা ৪৫ পয়সা পর্যন্ত। একক কলরেট চালু হলে অননেট কলের খরচ ৫ পয়সা বাড়বে, কিন্তু অফনেট কলের খরচ কমবে ৪৫ থেকে ৫০ পয়সা। এতে গ্রাহকসংখ্যায় পিছিয়ে থাকা অপারেটরগুলোর গ্রাহকেরা অনেক বেশি লাভবান হবেন।

এ বিষয়ে বিটিআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. জহরুল হক বলেছেন, অননেট ও অফনেট কলরেটের পার্থক্য উঠে যাওয়ায় সব অপারেটরের জন্য সমান প্রতিযোগিতার ক্ষেত্র তৈরি হবে। গ্রাহকদের আকৃষ্ট করার জন্য সেবার মান বৃদ্ধি করার দিকে মনোযোগ দিতে বাধ্য হবে অপারেটরগুলো।

অপারেটরগুলোর দায়িত্বশীল কর্মকর্তা এবং কাস্টমার কেয়ার হতে পাওয়া তথ্য মতে এবারের নতুন কলরেটে কোন অপারেটর কতটাকা নিচ্ছে এখানে তা সংক্ষেপে তুলে ধরা হলো-

গ্রামীণফোন : গ্রামীণফোনে কোনো প্যাকেজ পছন্দ ছাড়া বাই ডিফল্ট নিশ্চিত প্যাকেজের সিমে স্বাধীন রিচার্জে ভ্যাট-এসডি ও অন্যান্য চার্জসহ ১ টাকা ৬১ পয়সা মিনিট খরচ হবে। তবে আপারেটরটির নির্দিষ্ট করে দেয়া বিভিন্ন অ্যামাউন্টের রিচার্জের অফারে ভ্যাট-এসডি ও অন্যান্য চার্জসহ ৭৩ পয়সা মিনিটে কথা বলা যাবে। এটিই এখন অপারেটরটির সর্বনিম্ন কলরেট।

বাংলালিংক : বাংলালিংকের ক্ষেত্রে কোনো প্যাকেজ বা অফার ছাড়া ফ্লাটরেটে গ্রাহককে খরচ করতে হবে ভ্যাট-এসডি ও অন্যান্য চার্জসহ ১ টাকা ৬১ পয়সা মিনিট। অপারেটরটির সর্বনিম্ন রেটের প্যাকেজ বা অফারে কলরেট হলো ভ্যাট-এসডি ও অন্যান্য চার্জসহ ৬৫ পয়সা।

রবি : কোনো প্যাকেজ বা অফার না নিলে রবির ক্ষেত্রে গ্রাহককে খরচ করতে হবে ভ্যাট-এসডি ও অন্যান্য চার্জসহ ১ টাকা ৬৪ পয়সা প্রতি মিনিট। তবে অপারেটরটির সর্বনিম্ন রেটের প্যাকেজ ‘রেট কাটারে’ নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা রিচার্জ করলে প্রতি মিনিট ভ্যাট-এসডি ও অন্যান্য চার্জসহ ৬১ পয়সায় কথা বলা যাবে। এখানে রিচার্জের টাকা ও মেয়াদ নির্দিষ্ট করে দেয়া রয়েছে।

এয়ারটেল : রবির ব্র্যান্ড হিসেবে থাকা এয়ারটেলের ফ্রি বা ফ্লাটরেট ভ্যাট-এসডি ও অন্যান্য চার্জসহ ৮৮ পয়সা মিনিট। তবে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা রিচার্জের শর্তে ভ্যাট-এসডিসহ ৬৬ পয়সা মিনিট খরচ হবে।

টেলিটক : নতুন কলরেট সীমায় টেলিটক এখনো তাদের প্যাকেজ ও অফার ঠিক করেনি। এ বিষয়ে এক বৈঠক করে বিষয়টি ঠিক করা হবে বলে জানিয়েছেন সরকারি অপারেটরটির দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা। তবে তিনি বলছেন, সর্বনিম্ন কলরেট ৪৫ পয়সা চালু করা হবে।

ফেমাসনিউজ২৪.কম/কেআর/এস