logo

শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | ৭ আশ্বিন, ১৪২৪

header-ad

যৌনতায় উৎসাহ নেই সঙ্গীর?

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

প্রথম প্রথম একটু ছোঁয়া পেলেই মন ভরে যেত। অকারণ উষ্ণতা সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়ত। একটা অদ্ভুত ভালোলাগা তৈরি হত। এই ভাললাগাই পরিণত হত ভালোবাসায়। এভাবেই জন্ম নিত সম্পর্ক। নারী-পুরুষের আদি-অকৃত্রিম সম্পর্ক। কিন্তু সব সম্পর্ককেই সময়ের কঠিন পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। যৌনতাতেও মরচে ধরে। কীভাবে?

চুম্বন

যৌনতার প্রথম ধাপ। কথায় বলে, শুরুটা ঠিকঠাক হলে শেষটাও ভালই হবে। তাই চুম্বন যখন কেবল সকাল-সন্ধের অভ্যাস হয়ে ওঠে। তখনই বুঝতে হবে বিপদ ঘনিয়ে আসছে।

চোখ

চোখ কেবল শরীরে একটি আয়না মাত্র। কিন্তু এই আয়নাতেই মেলে মনের ঠিকানা। সঙ্গমের সময় সঙ্গীর চোখের দিকে তাকানো খুবই প্রয়োজন। কারণ এর মাধ্যমেই অনুভব করা যায় প্রেমের উদ্দামতা। সঙ্গী যদি মিলনের সময় চোখ এড়িয়ে যান, তাহলেই সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।

আকর্ষণ

আপনার শরীর যখন সঙ্গীর ছোঁয়া চাইছে, সঙ্গীর চোখ চাইছে বার্সেলোনা-রিয়াল মাদ্রিদের ম্যাচ। এক শরীর, দুই আকর্ষণ। যৌনতা সাপ-সিড়ি উপেক্ষা করে যদি সঙ্গী ফুটবলে মন দেন তাহলেই বুঝবেন সম্পর্ক নিয়ে নতুন করে ভাবার সময় এসে গিয়েছে।

অভ্যাস

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে শরীর অভ্যাসে পরিণত হয়। যে ছোঁয়া আগে সারা শরীরে একটা শিহরণ জাগাত, আজ সেই ছোঁয়াতেই যেন কোনও তাপ-উত্তাপ নেই। এটাই তো ঝামেলার সূত্রপাত।

উৎসাহ

সম্পর্কের প্রথম প্রথম আপনিই যেন সঙ্গীর গোটা পৃথিবী। একটু নজরের আড়াল হলেই চোখে হারাতেন। কিন্তু এখন তাঁর কাছে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ক্লাব, পার্টি, বন্ধু-বান্ধব। সাবধান হোন।

বাহানা

বিছানাটা এখন শুধু ঘুমানোর জন্যই যেন রয়েছে। কস্মিনকালে আপনি একটু সঙ্গমে উদ্যোগী হলেও সঙ্গীর টালবাহানা করতে শুরু করেন। কখনও অফিসের কাজ থাকে, কখনও ক্লান্তি। আপনার যৌনজীবনকেও ক্লান্তি গ্রাস করেনি তো!

তাহলে এখন কী করবেন? সম্পর্ককে কখনও পুরনো হতে দেবেন না। সঙ্গীকে হামেশা সারপ্রাইজ দেবেন। প্রয়োজনে, সময়ের ব্যবধানে নিজেকে একটু-আধটু পালটে ফেলবেন। আর মাঝে মাঝে মাঝেই দুষ্টু-মিষ্টি ঝগড়া করবেন। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে যৌনজীবন এভাবেই সক্রিয় রাখবেন।

ফেমাসনিউজ২৪/আরঅ্যা/আরইউ