logo

মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮ | ১০ মাঘ, ১৪২৪

header-ad

ই-সিগারেটে কি আসলেই ক্ষতি কম?

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ০৯ জানুয়ারি ২০১৮

ধূমপানের নেশা অনেকের জীবনেই সর্বনাশ ডেকে এনেছে। অনেকেই এই নেশা থেকে নিজেকে মুক্ত করতে পারেন না। বহু নেতিবাচক ভাবনার পিছুটান থেকে মুক্তি পেতে, অনেকেই আশ্রয় নেন ধোঁয়ার। আর ধোঁয়াটে আবহের মধ্যে নিজেকে বুঁদ করে রেখে ডেকে নেন নিজের সর্বনাশকে। ধূমপান থেকে মুক্তি পেতে এক নতুন উপায়ের কথা জানাল এক সাম্প্রতিক গবেষণা। নর্থ ইস্ট হিলস বিশ্ববিদ্যালয়, ইলেকট্রনিক নিকোটিন ডেলিভারি সিস্টেম নিয়ে কিছুদিন আগেই এক গবেষণা করে। আর সেই গবেষণা থেকে উঠে আসে ই-সিগারেট বা ইলেকট্রনিক সিগারেটের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যহানির সম্ভাবনা কম থাকে।

কী এই ই-সিগারেট?
এটি একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস। যার দ্বারা ধূমপানের নেশা তৈরি হয়। এর মধ্যে একটি তরল থাকে, যাকে উত্তাপ দিলে, তা মূলত বাষ্প তৈরি করে। আসলে এর দ্বারা ধূমপান নয়, বরং বাষ্প সেবন হয় বলে দাবি নির্মাতাদের।

ইলেকট্রনিক নিকোটিন ডেলিভারি সিস্টেম সিগারেটের পরিবর্ত হিসাবে ব্যবহার হতে পারে; এমনই দাবি গবেষণার। আর সিগারেটের থেকে এর দ্বারা স্বাস্থ্যহানি কম হয়। ফলে ধূমপান হঠাৎ করে ছাড়ার ক্ষেত্রে ই-সিগারেট সহজ পন্থা হতে পারে।

গবেষণা বলছে, ই-সিগারেট সেবনে তামাকজাত সমস্যাগুলি থেকে দূরে থাকা যায়। এটাতে ফুসফুসের ক্ষতির সম্ভাবনা এক্কেবারেই কম বলে দাবি গবেষণার।

ই-সিগারেটের জনপ্রিয়তা কম বয়সীদের মধ্যে ক্রমেই বেড়ে চলেছে বলে মত গবষকদের। গবেষণা বলছে, ২৩ থেকে ৩৫ বছর বয়সীরা ই-সিগারেট বেশি ব্যবহার করতে পারে। -ওয়ান ইন্ডিয়া

ফেমাসনিউজ২৪.কম/এসআর/এসএম