logo

বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ৯ ফাল্গুন, ১৪২৪

header-ad

জামাকাপড় থেকে রঙ উঠতে পারে, যেভাবে বুঝবেন!

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

বেশ সস্তা দামে পছন্দসই একটা কুর্তি কিনেছেন? ২-৩ বার পড়ার পর সেটি কাচতে দিলেন। আর তারপরই আপনার মাথায় হাত। নতুন কুর্তির রঙ উঠে একসারা। অনেক সময়ই জামাকাপড় থেকে এরকম রঙ উঠতে দেখা যায়। অনেক সময় সেই রঙ উঠে নষ্ট করে দেয় অন্য জামাকাপড়ও। কোন ধরনের পোশাক থেকে রঙ উঠতে পারে তা আগে থেকে জানা থাকলে এই সমস্যা এড়ানো যায়। কিন্তু, কীভাবে বুঝবেন কোন পোশাক থেকে রঙ উঠতে পারে আর কোনটা থেকে রঙ ওঠার সম্ভাবনা তেমন নেই। আজ থাকল তারই কিছু টিপস-

সস্তায় জামাকাপড় কেনার আগে দোকানেই দেখে নিন আপনি ঠকছেন না তো? কাপড়ের রঙ পাকা না হলে রঙটি স্বাভাবিকের চাইতে অনেক বেশি উজ্জ্বল দেখাবে। যেমন, একটি লাল বা কালো রঙের জামা স্বাভাবিকের থেকে অনেক বেশি উজ্জ্বল দেখাবে। ভালো করে জামাকাপড় পরখ করলে এই পার্থক্য আপনি বুঝতে পারবেন।

কাপড়ের রঙ উঠবে কি না সেটা বোঝার জন্য প্রথমে কাপড়ের এক কোণা একটু সাবান জলে ভিজিয়ে নিতে পারেন। তারপর কয়েক মিনিট রেখে ঘষে দেখুন রঙ উঠছে কিনা। যদি রঙ ওঠে তাহলে বুঝবেন পুরো জামা থেকেই রং উঠবে।
প্রথমে কাপড়ের খানিকটা অংশ ভিজিয়ে নিন। তারপর ওপরে একটি সুতি কাপড় রেখে ইস্ত্রি করুন। যদি সুতির কাপড়টি সাদা থাকে তাহলে ওই কাপড় থেকে রঙ উঠবে না।

সব জামাকাপড় নিয়ে একসঙ্গে ওয়াশিং মেশিনে দেবেন না। এতে যদি আপনার কোনও জামার রঙ ওঠে তাহলে সেই রঙ বাকি জামকাপড়েও লেগে যাবে। ওয়াশিং মেশিনে জামা বেশিক্ষণ ওয়াশ করবেন না। এতে জামা খারাপ হয়ে যাবার সম্ভবনা থাকে।

অনেকের অভ্যেস আছে জামাকাপড় গরম জলে ধোওয়ার। কিন্তু, এই রকম করবেন না। এতে জামাকাপড় সহজেই নরম হয়ে যায়। তাই, সবসময় জামাকাপড় ঠান্ডা জলে ধোওয়ার চেষ্টা করুন।

ওয়াশিং মেশিনে জামাকাপড় বেশিক্ষণ শুকোবেন না। এতে জামকাপড় থেকে ময়েশ্চারাইজার হারিয়ে যায়। জামাকাপড় ধোবার সময় নুন বা ভিনিগার ব্যবহার করুন। এতে জামা কাপড়ের রঙ ভালো থাকে।

ফেমাসনিউজ২৪/আরএ/আরইউ