logo

বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ | ৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

ডায়াবেটিস হলে বুঝবেন যেভাবে

লাইফস্টাইল ডেস্ক | আপডেট: ০২ জুলাই ২০১৮

ডায়াবেটিসকে ইরেজীতে বলা হয় মাদার অব অল ডিজিজ, অর্থাৎ সব অসুখের মা। ওষুধ, শরীরচর্চা ও খাওয়া-দাওয়া নিয়ম মেনে করলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে। তবে ডায়বেটিস হলে তাকে কখনো পুরোপুরি নিরাময় করা সম্ভব নয়। কিছু লক্ষণ শনাক্ত করে ডায়াবেটিসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া যায়। তবে, দ্রুত চিকিৎসার মাধ্যমে দীর্ঘ স্বাভাবিক জীবন পাওয়া সম্ভব। আসুন ডায়াবেটিসের প্রাথমিক লক্ষণগুলো এক নজরে দেখে নিই-

তৃষ্ণা ও প্রস্রাবের মাত্রা বৃদ্ধি: ডায়াবেটিস হলে পিপাসা বেড়ে যায়। ঘনঘন প্রস্রাবের বেগ পাওয়াও ডায়াবেটিসের লক্ষণ। সাধারণত একজন সুস্থ মানুষ সারাদিনে ৬-৭ বার প্রস্রাব করেন। পরিবেশ বা পরিস্থিতি পরিবর্তনে দিনে ৪-১০ বার প্রস্রাবকেও স্বাভাবিক ধরা হয়। তার বেশি হলেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ক্ষুধা বেড়ে যাওয়া: ডায়াবেটিসের অন্যতম প্রধান লক্ষণ হল ক্ষুধা বেড়ে যাওয়া। বারবার খাবার খাওয়ার পরেও ক্ষুধা ক্ষুধা ভাব থেকে যায়। এমন হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

অবসাদ বা ক্লান্তি বোধ: পর্যাপ্ত ঘুমের পরেও যদি সারাদিন অস্বাভাবিক ক্লান্ত বোধ করলে বুঝতে হবে ডায়াবেটিস আক্রমণ করেছে। ওই সময় ডায়াবেটিসের ফলে শরীরে গ্লুকোজের অভাব হয়। পাশাপাশি অতিরিক্ত প্রস্রাবের ফলে শরীরে পানির ভারসাম্য নষ্ট হয়। তাই শরীর ক্লান্ত ও অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়ে।

অস্বাভাবিকভাবে ওজন হ্রাস: খাদ্যাভ্যাস বা জীবনযাত্রার কোনো পরিবর্তন ছাড়াই হঠাৎ করে অস্বাভাবিকভাবে ওজন কমে যাওয়া ডায়াবেটিসের একটি অন্যতম লক্ষণ। ডায়াবেটিসের ফলে শরীর পর্যাপ্ত গ্লুকোজ পায় না। শরীরে প্রয়োজনীয় শক্তির ঘাটতি দেখা দেয়। আর সেই ঘাটতি পূরণের জন্য শরীর তার ফ্যাট ব্যবহার করা শুরু করে। ফলে শরীর ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ে ও ওজন কমতে থাকে।

ত্বকে কালচে ভাব: অ্যাকান্থসিস নিগ্রিকানস হলো এক ধরনের ত্বকের সমস্যা। এর ফলে ত্বকের উপরিভাগের কিছু অংশে পিচ্ছিলভাব তৈরি হয় ও সেখানে কালো ছোপ পড়তে থাকে। ত্বকের এই সমস্যা সাধারণত ঘাড়, কনুই, বগল, আঙুল, হাঁটুর পেছনের অংশে বেশি হয়।

ত্বকে চুলকানি ভাব: ডায়াবেটিসের ফলে শরীরে পানির ভারসাম্য নষ্ট হলে ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে পড়ে। শুষ্ক ত্বকের উপরিভাগে সংক্রমণ দেখা দেয়। ত্বকে চুলকানি, জ্বালাভাব অস্বস্তি তৈরি করে। ত্বকের সংক্রমণ বা চুলকানির আর একটি কারণ হলো ইস্ট ইনফেকশন, যেটি ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের ক্ষেত্রে খুবই স্বাভাবিক সমস্যা।

অস্পষ্ট দৃষ্টিশক্তি: দৃষ্টি হঠাৎ করে যদি অস্পষ্ট বা ঝাপসা হতে থাকে এবং তার জন্য যদি চোখের কোনো সমস্যা না থাকে, তবে বুঝতে হবে ডায়াবেটিসের সমস্যার জন্যই এমনটা হচ্ছে। শরীরের অভ্যন্তরে তরলের মাত্রার তারতম্য হওয়ায় চোখ ফুলে যায়। ফলে দৃষ্টি হঠাৎ করে অস্পষ্ট বা ঝাপসা হতে থাকে। এমন হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ক্ষতস্থান নিরাময়ে সময় লাগা: শরীরের যে কোনো কাটা-ছেঁড়া ও ক্ষতস্থান শুকতে বা সেরে উঠতে যদি খুব বেশি সময় লাগে তবে তা ডায়াবেটিসের প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে বিবেচিত হয়।

এর কোনটাই যদি অনুভূত হয় বা দেখা যায় তাহলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

ফেমাসনিউজ২৪.কম/জেডআর/এমআর