logo

বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯ | ৫ আষাঢ়, ১৪২৬

header-ad

আউটসোর্সিং প্রক্রিয়ায় সেবাগ্রহণ নীতিমালা জারি

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ০৩ জানুয়ারি ২০১৯

জরুরি ভিত্তিতে ১২টি সেবাগ্রহণের জন্য সরকার ১৬ থেকে ২০তম গ্রেডে শূন পদে জনবল নিয়োগের জন্য নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করছে। যা আউটসোর্সিং প্রক্রিয়ায় সেবাগ্রহণ নীতিমালা-২০১৮ নামে অভিহিত হয়েছে।

বুধবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে অর্থসচিব আব্দুর রউফ তালুকদার স্বাক্ষরিত এ নীতিমালা জারি করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, আউটসোর্সিং প্রতিষ্ঠান অথবা অন্য কোনো উৎস থেকে এ জনবল নিয়োগ দেয়া হবে। যাদের বয়সসীমা ১৮ থেকে ৬০ বছর। সরকার ১২টি সেবাগ্রহণের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠান নির্ধারণ করবে যোগ্যতা ও শর্ত। যেমন গাড়িচালক নিয়োগের ক্ষেত্রে সেবাগ্রহণকারী প্রার্থীকে এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকার শর্ত প্রদান করা যেতে পারবে। আবার নিরাপত্তা প্রহরী ও পরিচ্ছন্নকর্মী পদে সেবাগ্রহণের ক্ষেত্রে প্রার্থীর যোগ্যতা ৮ম শ্রেণির অথবা জেএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে মন্ত্রণালয় ও বিভাগ পরিচ্ছন্নকর্মীর ৮০ ভাগ হরিজন সম্প্রদায়ের জন্য নির্দিষ্ট করে বরাদ্দ থাকবে। যে সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে আউটসোর্সিং থেকে জনবল নেয়া হবে ওই প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন থাকতে হবে। এছাড়া ট্রেড লাইসেন্স, আয়কর সনদ, ব্যাংক সলভেনসি সনদ ও কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। জেলার ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসক এবং সিটি কর্পোরেশনের ক্ষেত্রে সিটি কর্পোরেশন থেকে প্রতিষ্ঠান নিবন্ধন গ্রহণ করতে হবে।

আউটসোর্সিং প্রক্রিয়ায় সেবাগ্রহণ নীতিমালা-২০১৮ অনুসারে, সেবা ক্রয়ের জন্য নির্ধারিত সেবাগুলো তালিকায় রয়েছে নিরাপত্তা ও পাহারা (কেপিআই ব্যতীত), পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা এবং বাগান পরিচর্যা, পরিবহন সেবা, ইলেকট্রিক্যাল, মেকানিক্যাল ও কাঠের কাজ, কুকিং ও ডাইনিং সংক্রান্ত, হোস্টেল, মেসরুম, ক্লাব, স্পোর্টস এবং কমনরুম, হাউজ কিপিং, কেয়ার টেকিং এবং হাসপাতাল সেবা, লিফট মেইন্টেনেন্স, পাম্প অপারেটিং, জেনারেটর অপারেটিং, মেশিন অপারেটিং ও প্রজেক্টর অপারেটিং, এয়ার কন্ডিশন যন্ত্র স্থাপন ও মেইন্টেনেন্স, ডাক বিতরণ, স্যানিটারি ও প্লাম্বিং কাজ এবং অর্থ বিভাগ কর্তৃক সময়ে সময়ে নির্ধারিত অন্য যেকোনো সেবা। আউটসোর্সিং প্রক্রিয়ায় সংগ্রহীত সেবা প্রদানকারীর সেবামূল্য সেবা প্রদানকারীর নিজ নামীয় ব্যাংক হিসাবে সেবা ক্রয়কারী কর্তৃক প্রদেয় হবে।

বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংযুক্ত অফিস, অধিদফতর, পরিদফতর, দফতর, সংবিধিবদ্ধ সংস্থা, রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান এবং প্রকল্পের ক্ষেত্রে পিপি, ডিপিপি, টিএপিপিতে আউটসোর্সিং থেকে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে। তবে আউটসোর্সিং থেকে অথবা অন্য কোনো উৎস থেকে নিয়োগ পাওয়া জনবল সরকারি নিয়োগ বলে বিবেচিত হবে না। এটা প্রতিষ্ঠান কিংবা ব্যক্তির সঙ্গে নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের চুক্তিভিত্তিক সম্পূর্ণ সাময়িক সেবাগ্রহণকে বুঝাবে। জনপ্রশাসন ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতির ভিত্তিতে আউটসোর্সিং থেকে জনবল সেবা নেয়া হবে।

প্রকল্প ও কর্মসূচির ক্ষেত্রেও একই নীতিমালা প্রযোজ্য হবে। ১৬ থেকে ২০তম গ্রেডের পদগুলো স্থায়ী কিংবা অস্থায়ী যেটাই হোক না কেন, অবসর, মৃত্যুজনিত, চাকরিত্যাগ, চাকরিচ্যুতি অথবা অন্য কোনো কারণে পদ শূন্য হলে এই নীতিমালার আলোকে ওই সব পদে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে। এমন কি উন্নয়ন প্রকল্প অথবা কর্মসূচির ক্ষেত্রে একই নীতি প্রযোজ্য হবে।

তবে যে সকল পদের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা, রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা সরকারি স্বার্থ বিঘ্নিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে অথবা নিরবিচ্ছিন্ন দক্ষ বা বিশেষায়িত সেবা পাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে সেসব পদে জনপ্রশাসন ও অর্থ বিভাগের সম্মতি সাপেক্ষে আউটসোর্সিং থেকে জনবল নিয়োগ দান থেকে বিরত থাকা যাবে।

নতুন এ নীতিমালা অনুসারে শূন্য পদে দৈনিক, মাসিক এবং বাৎসরিক ভিত্তিতে জনবল নিয়োগ দেয়া যাবে। সেই ক্ষেত্রে পাবলিক প্রকিউরমেন্ট আইন ২০০৬, পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা ২০০৮ অনুসরণ করে প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান থেকে জনবল নিয়োগ দিতে হবে।

ফেমাসনিউজ ২৪/এসএ/কেআর