logo

শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯ | ৭ চৈত্র, ১৪২৫

header-ad

১৫ মাসে সেই নগ্ন রেস্তোরাঁর কী হাল!

বিবিধ ডেস্ক | আপডেট: ০৯ জানুয়ারি ২০১৯

চালু হওয়ার ১৫ মাসের মধ্যেই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে প্যারিসের প্রথম নগ্ন রেস্তোরাঁ O’nature। সূত্রের খবর, যে লক্ষ্মীলাভের আশায় রেস্তোরাঁটি খোলা হয়েছিল, পনেরো মাস কেটে গেলেও সেই পরিমাণ অর্থ উপার্জন করা যায়নি। মুখ ফিরিয়েছেন দর্শকরা। ফলে লোকসানে চলা রেস্তোরাঁটি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মালিক মাইক ও স্টিফনি সাডা। ফেব্রুয়ারি থেকেই বন্ধ হচ্ছে রেস্তোরাঁটি।

২০১৭-এর নভেম্বরে প্যারিসে চালু হয়েছিল বিশ্বের নগ্ন রেস্তোরাঁ O’nature। শুরুর দিকে এ রেস্তোরাঁকে কেন্দ্র করে মানুষের মধ্যে বেশ আগ্রহ ছিল। রেস্তোরাঁর অভিনব থিম’ই ছিল প্রচারের মূল রসদ। পোশাক, ফোন ও অন্যান্য সামগ্রী বাইরে জমা করে রেখে তবেই এ রেস্তোরাঁয় প্রবেশ করতে হত গ্রাহকদের। এটাই ছিল রেস্তোরাঁর প্রধান শর্ত।

ঢোকার সময় প্রত্যেককে একটি করে জুতো দেয়া হত৷ একসঙ্গে বসে খাওয়ার ব্যবস্থা ছাড়াও ছিল একান্তে সময় কাটানোর সুযোগ। খাবার থেকে শুরু করে রেস্তোরাঁর সাজসজ্জা, প্রত্যেকটি বিষয়েই বেশ অভিনবত্ব এনেছিলেন মালিকরা। সমগ্র রেস্তোরাঁটি ছিল বড় বড় পর্দা দিয়ে মোড়া। সঙ্গে রয়েছে নানা রঙের আলো। বেশ একটা মায়াবী পরিবেশ।

মালিকপক্ষের ধারনা ছিল নগ্ন বিচের মতো, নগ্ন রেস্তোরাঁ হটকেকের মতো গ্রহণ করবেন সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে প্যারিসে ঘুরতে এসে একবার অন্তত তাদের রেস্তোরাঁতে ঢুঁ মারবেন দেশ-বিদেশের পর্যটকরা। কিন্তু তাদের এ ধারনা ভুল প্রমাণিত হয়েছে। আশানুরূপ ফলাফল পাননি রেস্তোরাঁর মালিক মাইক ও স্টিফনি সাডা। তাই বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম