logo

সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৭ | ৭ কার্তিক, ১৪২৪

header-ad

খালেদাকে যেভাবে বরণ করতে চায় বিএনপি

মো. রিয়াল উদ্দীন | আপডেট: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার দেশে ফেরা নিয়ে বিশাল শোডাউনের প্রস্তুতি নিচ্ছে বিএনপি অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, মহিলাদলসহ বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের উদ্যোগে এ শোডাউনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

পায়ের এবং চোখের চিকিৎসা ও পরিবারের সদস্যদের সাথে ঈদ উৎযাপন করতে ১৫ জুলাই লন্ডনে যান বেগম খালেদা জিয়া। চলতি মাসেই দেশে ফিরবেন বেগম খালেদা জিয়া।

খালেদা জিয়ার দেশে ফেরা এবং বিমানবন্দরে তাকে সংবর্ধনা দেয়া নিয়ে দলের সিনিয়র নেতাদের সাথে কথা বলে জান গেছে, দলের চেয়ারপারসনকে বিশাল শোডাউন করে শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ব্যাপক সংবর্ধনা দেয়া হবে।

এ লক্ষ্যে নীরবে ব্যাপক প্রস্তুতিও নেয়া হচ্ছে। বেগম খালেদার গুলশানের বাসা থেকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পর্যন্ত রাস্তার দুইপাড়ে সারিবদ্ধ হয়ে ফুল দিয়ে খালেদা জিয়াকে বরণ করে নেয়া হবে। খালেদার সংবর্ধনার দিন বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনগুলো ঢাকাকে মিছিলের নগরীতে পরিণত করতে চায়। পাশাপাশি বিমানবন্দরেও দলীয় নেতাকর্মীর ব্যাপক সমাগম ঘটাবে।

জানা গেছে, বেগম জিয়া দেশে ফিরবেন না আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন বক্তব্যের কড়া জবাব দিতে ও দলীয় নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত করতেই মূলত এ শোডাউনের আয়োজন করা হচ্ছে। এ আয়োজনে নেতাকর্মীদের উপস্থিতি দেখে জনগণও বিএনপির সামর্থ্য সম্পর্কে অবাক হবেন বলেও মনে করছেন তারা।

খালেদা জিয়ার দেশে ফেরা নিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে বইছে উৎসবমুখর আমেজ। বিএনপি চেয়ারপারসন দেশে ফেরার পরেই সহায়ক সরকারের রুপ রেখাসহ দলের সাংগঠনিক, নির্বাচন, সংসদীয় আসনসহ বিভিন্ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দেশে ফিরেই দল গোছানোর কাজ শেষ দেখতে চান। দল গোছানো হওয়ার পরই সহায়ক সরকারের রূপরেখা প্রকাশ করবেন তিনি। রূপরেখা প্রকাশের পর বিভিন্ন মহলের প্রতিক্রিয়া এবং সরকারের মনোভাব পর্যবেক্ষণ করবেন কিছুদিন। তারপর প্রয়োজনমতো সময়ে আন্দোলনের ডাক দেবেন বলেও জানিয়েছেন তারা।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কবে নাগাদ দেশে ফিরতে পারেন এমন প্রশ্নে ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামন দুদু ফেমাসনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এখনও পর্যন্ত সে রকম কোনো সিদ্ধান্তের কথা আমাদের জানানো হয়নি। তবে আশা করা যায়, এ মাসের মাঝামাঝিতে তিনি আসবেন এবং তারপরই সহায়ক সরকারের রুপরেখা ঘোষণা করতে পারেন। মোটামুটিভাবে সহায়ক সরকারের রুপরেখা চূড়ান্ত করা হয়েছে। তিনি আসলেই তা জাতির সামনে তুলে ধরা হবে।

বিএনপির অঙ্গসংগঠন জাতীয়তাবাদী যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম নিরব বলেন, আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া কবে দেশে ফিরবেন তা এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি, তবে আশা করছি এ মাসের মধ্যেই তিনি দেশে ফিরবেন। ম্যাডাম যখন আসবেন তখন আমরা ব্যাপকভাবে তাকে সংবর্ধনা দেব। যদিও এখন পর্যন্ত তারিখটা চূড়ান্ত হয়নি। সেই জন্য আমরা সেভাবে প্রকাশ করছি না। যখনই সিদ্ধান্ত হবে তখনই আমরা ব্যাপকভাবে প্রস্তুতি নেব।

ছাত্রদলের সহ-সভাপতি নাজমুল হোসেন  বলেন, আমরা এয়ারপোর্ট থেকে গুলশানের বাসভবন পর্যন্ত ব্যাপক শো-ডাউনের মাধ্যমে ম্যাডামকে সংবর্ধনা দেব। বেগম জিয়া দেশে ফিরবেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে- আওয়ামী লীগের নেতাদের এমন মন্তব্যের কড়া জবাব দেয়ার জন্যই এ শোডাউনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম