logo

সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৩ পৌষ, ১৪২৫

header-ad

ঐক্যফ্রন্ট-২০ দল সমঝোতায় নির্বাচন

ফেমাসনিউজ ডেস্ক | আপডেট: ১১ নভেম্বর ২০১৮

বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে সমঝোতা করে নির্বাচনে আসার ঘোষণা দিয়েছে। আর প্রার্থী মনোনয়নে দুই জোটের মধ্যে সমঝোতারও ঘোষণা এসেছে।

রোববার দুপুরে গুলশানের বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ ঘোষণা দেন জোটের নতুন সমন্বয়ক এলডিপির সভাপতি অলি আহমেদ। তবে ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের মধ্যে কোনো ধরনের সমঝোতা হয় সেটা অবশ্য জানানো হয়নি সংবাদ সম্মেলনে।

তবে এই ঘোষণায় নিশ্চিত হলো ২০ দলীয় জোটের শরিক জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গেও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমঝোতা থাকবে। যদিও এতদিন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা বলে আসছিলেন, জামায়াতের সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক নেই।

অলি আহমেদ বলেন, ২০ দলীয় জোট বরাবরই গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে, তাই তারা নির্বাচন চায়। তাই ২০ দলীয় জোট আসন্ন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। আমরা ঐক্যফ্রন্টের সাথে সমঝোতার মাধ্যমে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব।

এলডিপি নেতা বলেন, জনগণের প্রতি আস্থা আছে বলে আমরা ২০ দলীয় জোট প্রতিকূলতার মধ্যেও আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জোটগতভাবে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার দৃঢ় সংকল্প ব্যক্ত করছি। সরকারের দুর্নীতি, অনাচারসহ তিস্তার পানি আনতে ব্যর্থতা ও রাষ্ট্রীয় স্বার্থ রক্ষায় সীমাহীন ব্যর্থতার বিরুদ্ধে রায় দেয়ার সুযোগ দেওয়া উচিৎ বলে আমরা মনে করি। সেই কারণে আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব।

সংবাদ সম্মেলনে জামায়াতে ইসলামীর প্রতিনিধি আবদুল হালিম উপস্থিত থাকলেও তিনি কথা বলেননি।

২০১৪ সালের দশম সংসদ নির্বাচন বর্জন করা বিএনপির এবার ভোটে আসার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল গত কয়েক মাস ধরেই। নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবি পূরণ না হলে আন্দোলনে যাওয়ার ঘোষণা থাকলেও তফসিল ঘোষণার পর এবার বিএনপি কোনো কর্মসূচি দেয়নি। নিজেরা ভোটে আসার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়ে শনিবার বিএনপি তার দুই জোট ২০ দল এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বৈঠক করে। সেখানে বিএনপির পাঁচ শরিক ভোট বর্জনের পক্ষে মত দেয়, বাকিরা ছিলেন পক্ষে। আর জামায়াতে ইসলামী এক দিন সময় নেয়। আর দলের নির্বাহী কমিটির বৈঠকেও ভোটে অংশ নেয়ার পক্ষে মত দেন নেতারা।
ফেমাসনিউজ২৪/ কেআর/ এস