logo

মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১ | ১৩ মাঘ, ১৪২৭

header-ad

সব হারিয়ে ভুল বুঝতে পারলেন ড. কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ১২ জানুয়ারি ২০১৯

দেশের জনগণের গণতান্ত্রিক ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ঘটন করা হয়। বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটও এ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে অংশ নেন। জনগণের গণতন্ত্রের ভোটের অধিকার আদায়ের নির্বাচন শেষ হবার পর ড. কামাল বুঝতে পারলেন জামাতের সাথে ঐক্য করে অনিচ্ছাকৃত ভুল হয়েছে।

শনিবার রাজধানীর আরামবাগে গণফোরামের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি নিজের এ ভুলের কথা স্বীকার করেন।

ড. কামাল বলেন, ‘জামাতের সাথে ঐক্য করে অনিচ্ছাকৃত ভুল হয়েছে। জামায়াতের সাথে রাজনীতি কখনো করিনি ভবিষ্যৎ করবো না। আমি যখন ঐক্যে সম্মতি দিয়েছি তখন জামায়াতের কথা আমার জানা ছিল না। এটা ঐক্যফ্রন্ট গঠনে ভুল ছিল।’

এসময় জামায়াতকে বাদ দিয়ে বিএনপিকে রাজনীতি করার আহবান জানান ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, ‘ঐক্য টেকাতে হলে বিএনপিকে জামায়াত ছাড়তে হবে।’

এছাড়াও তড়িঘড়ি করে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করে যেসব ভুলত্রুটি হয়েছে তা সংশোধন করা হবে বলেও জানান ড. কামাল।

জাতীয় নির্বাচনকে উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষের মধ্যে মৌলিক বিষয়ে কিন্তু ঐক্যমত্য আসেনি। একটা সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের সংসদ গঠিত হোক, এটা নিয়ে কোন দ্বিমত নেই কিন্তু ৩০ তারিখে যা ঘটেছে সেটা তো আপনারা পত্র-পত্রিকায় পাচ্ছেন।’

দেশের স্বার্থে সংবিধানের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সরকার সিদ্ধান্ত নিতে চাইলে সেটা পারে বলে দাবি করে ড. কামাল বলেন, ‘তারা চাইলে দুই তিন মাস বা তার চেয়ে সময়ের মধ্যে একটা নির্বাচন করা যেতে পারে।’ এছাড়া আগামী ২৩ এবং ২৪ মার্চ ঢাকায় গণফোরামের জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান ড. কামাল হোসেন।

ফেমাসনিউজ২৪.কম/আরআই/এমআরইউ