logo

রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১২ আশ্বিন, ১৪২৭

header-ad
কল্পকথা

দীপ নেভা অাঁধারে

সৈয়দ এরশাদুল হক মিলন | আপডেট: ১১ মে ২০১৪

নিভে গেছে সন্ধ্যাতারা। দীপ নেভা আঁধার। কখনো কখনো বেজে ওঠে রাতজাগা জোনাকির উড়ে চলা। চওড়া রাস্তা বেয়ে শুধুই এগিয়ে চলা। পাশাপাশি। খুব কাছাকাছি। নিঃশ্বাসের পতন শব্দ হয়ে জ্বলে। পদধ্বনি নিভে যায় দূর দিগন্তলয়ে। ঠোঁটে লেপ্টে থাকা সিগারেটটা নির্জীব রয়ে যায়। শোনা হয় না দেশলাই ধ্বনি।

গ্রীবা বাঁকানো স্বর গেয়ে ওঠে, 'রাতের এই জ্বলে ওঠাকে কী বলবেন, কবি?' সিগারেট লেপ্টানো স্বরে বলি, 'মদন মোহিনী’। শোনে কি শোনে না! গেয়ে ওঠে আবার, 'একটু কাছে সরে আসুন না! কিছুই তো বোঝা যাচ্ছে না'।

ডুব দেয় লাজুক ধ্রুবতারা। নেমে আসে কামরাঙা আকাশ। গভীর বেদনায় দিগন্ত উড়ে যায়। রাতফোটা ফুল গুন গুন গেয়ে ওঠে, 'প্রকৃতি কি জাগবে আজ?' আমি মুগ্ধ হয়ে উঠি। বলি, ‘যতো কাছে এসেছি, দেবী, এর বেশি তো এখন যাওয়া যাবে না’। থেমে যায় বাতাসের তাণ্ডব। জ্বলে ওঠে আঁখিতারা। নিভে যায় আঁধার। আড়মোড়া ভেঙে সূর্য ওঠে জেগে।