logo

রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৫ আশ্বিন, ১৪২৭

header-ad

শিক্ষিত নয়, মানুষ হতে চাই

সাইফুল ইসলাম | আপডেট: ০৭ নভেম্বর ২০১৬

আমরা সবাই মানুষ হয়ে জন্মেছি। ভুল-ত্রুটি নিয়েই আমাদের জীবন। আমাদের কারো কারো মনে থাকে কত কষ্ট, কত বেদনা! মাঝে মাঝে মানবীয় গুণাবলী হারিয়ে আমরা নিচু শ্রেণীর প্রাণীতে পরিণত হই।

পড়ালেখা ভাল লাগে না কি লাভ বল পড়ে? পড়ালেখা করে শিক্ষিত হব, এখন তো কাউকে শিক্ষিত মনে হয় না আমার, আমি মূর্খ হয়তবা সেজন্যও হতে পারে। কিন্তু দেশ-দশের, সমাজ এবং মানুষের জন্য তো কাউকে এগিয়ে আসতে দেখি না। পাশের বাসায় কে থাকে কেউ খবর রাখি না, আমরা নাকি সবাই প্রতিবেশি? প্রতিবেশির কর্তব্য কি মনে পড়ে না? দেখে বলুন আর বই পড়েই বলুন কিংবা মুরুব্বীদের মুখে শুনে এটাই বর্তমান শিক্ষার গুণ।

ধরা যাক, কেউ আমাকে খুব বাজে কিছু কথা বলল, খুব গালি দিল, যা নয় তাই বলল। তখন আমি কী করব? তাকেও পালটা জবাব দেব? তাকেও গালি দেব? কটূ কথা শোনাব? এসব না করে, আমি যদি অন্য কিছু করি! যদি তাকে জিজ্ঞেস করি, আচ্ছা, আপনি আমাকে যে এসব বললেন, নিশ্চয়ই তার পেছনে কোনো কারণ আছে! বা আমার কোনো ভুল হয়েছে বলেই আপনি এমন করছেন! আমাকে কি বলবেন, আমার ভুলটা কোথায় হয়েছে? কেন আপনি রেগে আছেন? তিনি যদি আমার বন্ধু হন, আমার শুভাকাংক্ষী হন, আমাকে রাগী ভাষায় হলেও আমার ভুলগুলো খুলে বলবেন তখন। আমি তারপর ভেবে দেখব, সত্যিই আমার ভুল হয়েছে কিনা, হয়ে থাকলে ক্ষমা চাইব, ক্ষমা চাওয়া তো দোষের কিছু নয়। আর আমার কোনো ভুল সত্যিই না হয়ে থাকলে তাকে ভালো করে বলব, যে তার হয়ত কিছু বুঝতে ভুল হয়েছে কোথাও!

যে পিতা-মাতা শরীরে রক্ত তিল তিল করে দিনের পর দিন বাঁচিয়ে রাখার জন্য দিয়েছে আহারের জোগান। আজ কেন বৃদ্ধ পিতা-মাতাকে বৃদ্ধাশ্রমে ধুকে ধুকে জীবন কাটাতে হয়? কেন পথের ধারে কিংবা বদ্ধ কুঠুরিতে একাকি করছে বসবাস ? যে শিক্ষা মানুষকে অমানুষ গড়ে তোলে আমি সে শিক্ষিত হতে চাই না।

হাজারও প্রশ্ন হতে পারে সবাই তো এক নয় আমি মেনে নিচ্ছি, তবে তারা কি পড়া লেখায় শিক্ষিত নয়? এ শিক্ষার কোন মূল্য নেই আমি শিক্ষিত হতে চাই না, চাই না শিক্ষার কোন ডিগ্রী, আমি মানুষ হতে চাই।

ইদানিং ভাবনা গুলো কুরে কুরে খেয়ে চলেছে উলু পোকার মতো, যার আক্রমনে মাটিতে দাঁড়িয়ে থাকা বাঁশের খুঁটি যেমন দাঁড়িয়ে ঠিক তেমন নিজেকে মনে হয়। অনেকের বাহ্যিক দেখে মনে হয় বেশ আছে, কিন্তু স্পর্শে হাওয়াই মিঠাইয়ের মতো চুপসে যাওয়া মাংসহীন ঝুলন্ত চামড়া।

আসলে ক্ষণিকের পৃথিবীতে কেউ আপন নয়, আপন বলতে নিজের কর্ম। নিজের কর্মই ক্ষণিকের এ পৃথিবীতে আসমান-জমিন এবং ওপারেতেও ঠিক তাই। এই তো সময়, সময়ের হিসেবটা কেন হিসেব করে চলতে পারি না, কেন মুনুষ্যত্বকে ভুলে গিয়ে পশুত্বে বসবাস করি। কতজন এলো আর কতজন গেলো কেউ কি তার হিসেব রাখি? পৃথিবীতে আগমনের হিসেবটা সবাই রাখে কিন্তু গমণের হিসেব? এসো শিক্ষিত নয় মানুষ হয়। সত্যের সাথে হোক মিথ্যে আর অসত্যের ব্যবধান।

জীবনটা আসলে খুবই সহজ। কেউ যদি একে জটিল করে ভাবতে চায়, ভাবুক না! আমি কেন অন্যের মত ভাববো, আমি তো মূর্খ, আমি তো মানুষ হতে চাই।