logo

বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৭ আশ্বিন, ১৪২৭

header-ad

সাধারণ মানুষ অনেক কিছুই বুঝতে পারে

খান মুহাম্মদ মুরসালীন | আপডেট: ১৮ মার্চ ২০১৭

দুই-চার-পাঁচশো মগজ ধোলাই করা ছোকড়ার জন্য বাংলাদেশের নব্বই শতাংশ মুসলমানকে কেন বারবার কৈফিয়ত দিতে হবে, যে তারা সন্ত্রাসী নয় বা সেই মনোভাবে বিশ্বাসী নয়? অন্য ধর্মাবলম্বীদের কেন চাপা আতঙ্কে বসবাস করতে হবে? যারা দেশ চালাচ্ছেন তারা কি সেটা বোঝেন না?

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাদের ধরতে পারছে বা মারতে পারছে? যারা ইতোমধ্যে উগ্রপন্থার সাথে জাড়িত হয়ে গেছে, তাদের। কিন্তু এরা কি আসমান থেকে নাযিল হয়েছে? এই সমাজেই একটা লম্বা সময় ধরে এদের মগজ ধোলাই করেছে সমাজে বসবাসরত কিছু মানুষরুপী অমানুষ।

সেই প্রক্রিয়া মোকাবেলায় রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা শুধুমাত্র গালমন্দ করা ছাড়া আর কোন ভূমিকাটা পালন করেছে শুনি? কোনো সাংস্কৃতিক আন্দোলন আছে বর্তমানে? রাজনীতিতে ভিন্ন মতাবলম্বীদের কোন ঠাসা করা ছাড়া সুস্থ্য রাজনীতির পরিবেশ আছে? অথচ সরকার কিংবা বিরোধী দল, সাংস্কৃতিক কিংবা গোয়াড় সকলেই একে অন্যের অবাঞ্চিত কেশগুচ্ছ টানাটানি করা ছাড়া আর কি করতে পেরেছেন?

আর বলেই বা কি লাভ? যখনই কোনো প্রভাবশালী দেশের স্বার্থ নিয়ে একটু টানাপড়েন শুরু হয়, তখনই একটার পর একটা ঘটনা ঘটতে থাকে। এই জোচ্চোর মানসিকতার আবালগুলো কি বোঝে না, যে সাধারণ মানুষ সবটুকু না পারুক, কিন্তু অনেক কিছুই বুঝতে পারে?

ফেমাসনিউজ২৪/আরইউ