logo

মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮ | ১ কার্তিক, ১৪২৫

header-ad

কলকাতাকে হারিয়ে ফাইনালে হায়দরাবাদ

ক্রীড়া ডেস্ক | আপডেট: ২৬ মে ২০১৮

সুনিল নারাইনকে টানা দুই চার হাঁকিয়ে ঝড়ের আভাস দিলেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু পরেই ফিরে গেলেন দুর্ভাগ্যজনক রান আউট হয়ে। সাকিবের অসমাপ্ত কাজ শেষ করলেন রশিদ খান। বোলিংয়েও বড় অবদান রাখলেন এই স্পিন জুটি। তাদের নৈপুণ্যে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে হারিয়ে ফাইনালে উঠল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে ১৩ রানে জিতেছে হায়দরাবাদ। ১৭৫ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ঘরের মাঠে কলকাতা ৯ উইকেটে করে ১৬১ রান।

ব্যাটিংয়ে নেমে ২৪ বলে চারটি চারে ২৮ রান করেন সাকিব। দীপক হুদার স্ট্রেট ড্রাইভ বোলারের আঙুল ছুঁয়ে ভেঙে দেয় স্টাম্প। একটু এগিয়ে যাওয়া নন স্ট্রাইকার সাকিব ফিরতে পারেননি সময় মতো। ফিরে যান রান আউট হয়ে।

কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে শুক্রবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ঋদ্ধিমান সাহা ও শিখর ধাওয়ান দলকে এনে দেন ভালো শুরু। দলে ফেরা উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান ২৭ বলে করেন ৩৫। আরেক ওপেনার ধাওয়ান ২৪ বলে করেন ৩৪।

দারুণ ছন্দে থাকা উইলিয়ামসন ব্যর্থ এদিন। হায়দরাবাদ অধিনায়ক ফিরেন মাত্র ৩ রান করে। মিডল অর্ডারে দলকে টানেন সাকিব। দুই বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান ইউসুফ পাঠান ও কার্লোস ব্র্যাথওয়েট তুলতে পারেননি ঝড়।

শেষের টর্নেডো ইনিংস দলকে পৌনে দুইশ রানে নিয়ে যান রশিদ। মাত্র ১০ বলে চারটি ছক্কা আর দুটি চারে অপরাজিত থাকেন ৩৪ রানে।

২৯ রানে ২ উইকেট নিয়ে কলকাতার সেরা বোলার কুলদীপ যাদব।

ঝড় তুলে চতুর্থ ওভারে ফিরে যান নারাইন। নবম ওভারে সাকিব যখন বোলিংয়ে আসেন তখন ক্রিজে জমে গেছে ক্রিস লিন, নিতিশ রানার জুটি। বাঁহাতি স্পিনার নিজের প্রথম ওভারে কোনো উইকেট নিতে পারেননি। তবে সেই ওভারে রান আউট হয়ে ফিরে যান রানা।
লিন ও নারাইনের ঝড়ে শুরুতে এলোমেলো হয়ে যাওয়া হায়দরাবাদের বোলিং ছন্দে ফেরে সাকিব, রশিদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে। রশিদের ছোবলে দ্রুত ফিরেন রবিন উথাপ্পা।

চতুর্থ ওভারে ফিরে সাকিব বোল্ড করে দেন দিনেশ কার্তিককে। পরের ওভারে ফিরে করেন আরেকটি আঁটসাঁট ওভার। সেই ওভারে দুইবার কোনোমতে বেঁচে যান আন্দ্রে রাসেল। প্রথমবার সাকিবের একটু ওপর দিয়ে যায় ফিরতি ক্যাচ। পরেরবার কঠিন ক্যাচ গ্লাভসে নিতে পারেননি ঋদ্ধিমান।

সব মিলিয়ে সাকিব ৩ ওভারে ১৬ রান দিয়ে নেন ১ উইকেট।

লিন (৩১ বলে ৪৮), নারাইনের (১৩ বলে ২৬) পর দলকে টানেন শুভমান গিল। কিন্তু ব্র্যাথওয়েটের করা শেষ ওভারে ১৯ রানের সমীকরণ মেলাতে পারেননি তিনি। ফিরে যান ২০ বলে ৩০ রান করে।

লেগ স্পিনার রশিদ ১৯ রানে নেন ৩ উইকেট। দুটি করে উইকেট নেন সিদ্ধার্থ কাউল (২/৩২) ও ব্র্যাথওয়েট (২/১৬)।

আগামী রোববার ফাইনালে চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে খেলবে হায়দরাবাদ।

ফেমাসনিউজ২৪/আরআর/আরইউ