logo

সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ | ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫

header-ad

১৬ দিন ধরে ৪টি ‘বুনো শুকর’ নিয়ে অন্ধকার গুহায় কোচ!

স্পোর্টস ডেস্ক | আপডেট: ১০ জুলাই ২০১৮

১৬ দিন ধরে ৪টি ‘বুনো শুকর’ নিয়ে অন্ধকার গুহায় কোচ। ধাপে ধাপে চলছে উদ্ধারের কাজ। থাইল্যান্ডে উদ্ধার অভিযানে ব্যবহৃত হচ্ছে কিড সাবমেরিন। সোমবার সকালে বেশ কয়েকটি থাই সংবাদমাধ্যমে খবর রটেছিল, রোববারের উদ্ধার হওয়া ৪ জনের মধ্যে আছেন কোচ একাফোল চান্তাওং।

কিন্তু থাই কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, একাফোল এখনও গুহাতেই আছেন। সঙ্গে রয়ে গেছে তার চার বন্যশুকর। এ নামেই তাদের এখনও অবধি ডাকছে থাই কর্তৃপক্ষ। পরিচয় এখনও গোপন রাখা হয়েছে।

সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ১১টার দিকে উদ্ধারকাজ শুরু করা হয়। রোববার যে ডুবুরিরা ৪ জনকে বের করে এনেছিলেন গুহার বাইরে, এদিনও উদ্ধারকাজে তারাই মুখ্য ভূমিকা নেন।

গত রাতে এবং এদিন সকালেও বৃষ্টি হয়েছে। তাতে গুহার ভেতরে জলস্তর বেড়ে গিয়ে উদ্ধারে সমস্যা হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছিল। কিন্তু উদ্ধারকারীরা জানিয়েছেন, গুহার ভেতরের অবস্থার বিশেষ হেরফের হয়নি।

গুহার ভেতর থেকে কোনও ভাইরাস ইত্যাদি সংক্রমণ হয়েছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বাবা-মায়েদেরও এখনও দেখা করতে দেয়া হয়নি। তবে এই আট কিশোরের মন ভালো করতে তাদের 'পাদ ক্রাপাও' নামে একপ্রকার থাই খাদ্য দেয়া হচ্ছে।

এদিকে উদ্ধারকাজ চলাকালীন সংবাদমাধ্যমের ভূমিকা নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেছে থাই কর্তৃপক্ষ। তাদের অভিযোগ, উদ্ধার অভিযান চলাকালীন নাকি একটি সংবাদমাধ্যম গুহার ভতর ড্রোন উড়িয়েছে।

পুলিশ রেডিও’র কথোপকথন রেকর্ড করার চেষ্টাও করা হয়েছে। সোমবার উদ্ধারকাজ দেখতে ঘটনাস্থলে আসার কথা ছিল থাই প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুত চান-ও-চা'র। কিন্তু তিনি এলে উদ্ধারকাজ ব্যাহত হবে আশঙ্কায় সেখানে না গিয়ে যান চিয়াং রাইয়ের হাসপাতালে। সেখানে কিশোরদের বাবা-মায়েদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।
ফেমাসনিউজ২৪/এফএম/এমএম