logo

শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮ | ২ ভাদ্র, ১৪২৫

header-ad

ট্রোলড পুতিন

ক্রীড়া ডেস্ক | আপডেট: ১৬ জুলাই ২০১৮

বিশ্বকাপ ফাইনালের পুরস্কার বিতরণী মঞ্চ। সেখানে রয়েছেন আয়োজক দেশ রাশিয়ার প্রেসিডেন্টসহ দুই ফাইনালিস্ট দেশের প্রেসিডেন্ট এবং ফিফার প্রেসিডেন্ট। এমন সময় হুড়মুড় করে নামল বৃষ্টি। তুমুল সেই বৃষ্টিতেও চলল পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। ভিজছেন সবাই। এর মধ্যে এক কর্মকর্তা এসে ছাতা ধরলেন রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মাথায়। মঞ্চে উপস্থিত দুই দেশের রাষ্ট্রপতি তখনো ভিজছেন। রাশিয়ার এ কা-ে হতবাক পুরোবিশ্ব। প্রশ্ন উঠেছে, রাশিয়ার পুতিনের সৌজন্যবোধ নিয়েও। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে সমালোচনার ঝড়।

গত রোববার ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ জেতে ফ্রান্স। ম্যাচে শেষে পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে আসেন ভ্লাদিমির পুতিন, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ, ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট কলিন্দা গ্রাবার-কিতারোভিচ ও ফিফা সভাপতি জিয়ানি ইনফান্তিনো। পুরস্কার বিতরণী চলাকালেই লুঝনিকি ভাসিয়ে বৃষ্টি নামে। তুমুল বৃষ্টিতে ভিজতে থাকেন সবাই। কেবল একজনের মাথায় ছাতা। তিনি আয়োজক দেশের প্রেসিডেন্ট পুতিন। আর অতিথি দেশের দুই প্রেসিডেন্ট তার পাশে দাঁড়িয়ে ভিজছেন বৃষ্টিতে।

বিষয়টি ভালোভাবে নেয়নি অনেকেই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাই পুতিনের ছাতা নিয়ে শুরু হয়েছে ট্রল। একজন তার টুইটারে ব্যাঙ্গ করে লিখেছেন, স্যার, কয়টা ছাতা আনব? পুতিন : মাত্র একটা। তারা আমাদের জিততে দেয়নি। এখন তাদের ভিজতে দাও! আরেকজন লিখেছেন, ‘পুতিন রাশিয়ার রজনীকান্ত। বৃষ্টি তাকে ভেজাতে পারে না, তিনিই বৃষ্টিকে ভেজান!’

‘রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের একটি ছাতা আছে, এটা নিশ্চিত করতেই পরিকল্পিতভাবে বৃষ্টি নেমেছে।’- লিখেছেন একজন। আরেকজন লিখেছেন, ‘রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট এতই ক্ষমতাবান, পুরস্কার বিতরণীর সময় তিনি ফিফা কর্মকর্তাদের ভিজিয়ে দিয়েছেন।’

বেশ কিছুক্ষণ পর অবশ্য সবার জন্য ছাতার ব্যবস্থা করে আয়োজক কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ততক্ষণে ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভিজে কাক!

ফেমাসনিউজ২৪/আরআর/আরইউ