logo

মেসি পিএসজিতে আসবেন ভাবেননি পচেত্তিনো

লিওনেল মেসি নিজেই কি ভেবেছিলেন! বার্সেলোনায় থাকতে নিজের বেতন কমালেন, কিন্তু বার্সাই তাঁকে ছেড়ে দিল আর্থিক সমস্যার কারণে। ক্যারিয়ারের বড় অংশ বার্সায় কাটিয়ে দেওয়ার পর এমন একটা পরিস্থিতিতে পড়লেন, যেখানে ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও নিজেদের বহুদিনের পরিচিত, আপন ঘর থেকে বিদায়ই নিতে হলো তাঁকে।

মেসির মতো ফুটবলার ‘ফ্রি এজেন্ট’। যেতে বাধা নেই কোনো দলেই। কিন্তু তাঁর মতো তারকাকে আকাশচুম্বী বেতন দিয়ে কে নেবে! খুব বেশি ক্লাবের নাম আসেনি—পিএসজি আর ম্যানচেস্টার সিটির মতো দুই পেট্রোডলার–সমৃদ্ধ ক্লাবের পক্ষেই মেসির সঙ্গে চুক্তি করা সম্ভব ছিল। শেষ পর্যন্ত পিএসজিতেই সই করেন আর্জেন্টাইন তারকা।

পিএসজিতে মেসির সই করাটা ছিল অনেকের কাছে স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো। এ–ও কি সম্ভব! বার্সার ঘরের ছেলে হয়ে ওঠা মেসি কীভাবে পিএসজিতে চলে এলেন! স্বপ্নের মতো ব্যাপার তো বটেই। অন্যদের কথা বাদ দিন। পিএসজি কোচ মরিসিও পচেত্তিনো নিজেও ভাবেননি যে বিষয়টি আদৌ সম্ভব হবে, মেসি খেলবেন তাঁর অধীন। তিনি কোনো রাখঢাক না রেখেই জানিয়েছেন, তাঁর ক্লাব যে মেসিকে সই করাবে, সেটি তিনি কখনোই প্রত্যাশা করেননি। এটা বাস্তবসম্মত কোনো ব্যাপার কি না, তা নিয়েও সন্দেহ ছিল এই আর্জেন্টাইন কোচের।

উয়েফার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে পচেত্তিনো মেসিকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন, ‘আমি হয়তো মেসিকে নিয়ে বলার পক্ষে খুব উপযুক্ত ব্যক্তি নই। আরও অনেক মানুষ আছেন, যাঁরা মেসিকে আরও সুন্দর ও সঠিকভাবে বর্ণনা করতে পারবেন, সে শব্দভান্ডার তাঁদের আছে। সে বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার।’

পিএসজিতে মেসির সই করার ব্যাপারটি পচেত্তিনোর কাছে রীতিমতো স্বপ্নের মতো, ‘আমি ভাবিনি যে মেসিকে পিএসজি সই করাতে পারবে। সুযোগ এসে গেল আর পুরো বিষয়টি বেশ দ্রুত ঘটেছে।’

ফরাসি ক্লাবে এসে মেসি খুব ভালোই মানিয়ে নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পচেত্তিনো, ‘মেসি বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার। পিএসজিতে আসার পর থেকে সে দলের সঙ্গে খুব ভালোভাবেই মানিয়ে নিয়েছে। অনুশীলনেও সে দুর্দান্ত। শিগগিরই সে নিজের সেরা ফর্ম অর্জন করতে পারবে বলে মনে করি।’

মেসি ও পচেত্তিনো—দুজনই আর্জেন্টাইন। সবচেয়ে বড় কথা, দুজনের জন্ম একই জায়গায়—রোজারিও। দুজনই নিওয়েলস ওল্ড বয়েজ ক্লাবের সমর্থক, এ ব্যাপারও পচেত্তিনোর দুর্দান্ত ঠেকছে, ‘আমাদের অনেক মিল আছে। দুজনই আর্জেন্টাইন। দুজনই রোজারিওতে জন্মেছি, একই ক্লাবেরও (নিওয়েলস ওল্ড বয়েজ) সমর্থক। প্রতিপক্ষের খেলোয়াড় হিসেবেই তাকে পেয়েছি বেশি। তবে শ্রদ্ধাটা সব সময়ই ছিল। এখন একই দলে আছি। আমি আশা করি, আমরা দুজন মিলে পিএসজি যা চায়, সেই লক্ষ্য অর্জন করতে পারব।’

#####|||||#####লিওনেল মেসি নিজেই কি ভেবেছিলেন! বার্সেলোনায় থাকতে নিজের বেতন কমালেন, কিন্তু বার্সাই তাঁকে ছেড়ে দিল আর্থিক সমস্যার কারণে। ক্যারিয়ারের বড় অংশ বার্সায় কাটিয়ে দেওয়ার পর এমন একটা পরিস্থিতিতে পড়লেন, যেখানে ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও নিজেদের বহুদিনের পরিচিত, আপন ঘর থেকে বিদায়ই নিতে হলো তাঁকে।#####|||||#####পচেত্তিনো, মেসি পিএসজি, লিওনেল মেসি, উয়েফা